মেইন ম্যেনু

তৃতীয় শ্রেনীর ছাত্রীকে ধর্ষনের অভিযোগে থানায় মামলা, ধর্ষক পলাতক

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে তৃতীয় শ্রেনীতে পড়ুয়া শিশু কন্যাকে ধর্ষনের ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে।
রোববার গভীর রাতে মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে ধর্ষক খলিলুর রহমানকে আসামী করে কালিগঞ্জ থানায় মামলা করেন। অভিযুক্ত ধর্ষকের নাম রফিকুল ইসলাম (৩৮)। সে উপজেলার কুশুলিয়া গ্রামের কালু সরদারের ছেলে।

স্থানীয় সুত্র হতে জানা যায়,উপজেলার কুশুলিয়া গ্রামের দিনমজুরের মেয়ে স্থানীয় একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেনীর ছাত্রী। ১৫ আগষ্ঠ জাতীয় শোক দিবসে সে তার বিদ্যালয় কর্তৃক আয়োজিত অনুষ্ঠানে অংশগ্রহন করে। বিদ্যালয়ের সামনেই খলিলুরের মনোহরী দোকান। অনুষ্ঠান শেষে শিশুটি রফিকুলের মনোহরী দোকানে যায়। রফিকুল বিভিন্ন মনোহরী দ্রব্যাদি শিশুটিকে দিয়ে তার দোকানে অপেক্ষা করায়। কিছুক্ষনের মধ্যে প্রবল বর্ষণ শুরু হলে আশেপাশে কেউ না থাকার সুযোগে সে শিশুটিকে ধর্ষণ করে।
একপর্যায়ে শিশুটি রক্তাক্ত অবস্থায় দৌড়ে বাড়ীতে এসে তার মাকে ঘটনা জানায়। এঘটনা চারিদিকে চাউর হলে স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যক্তিরা থানায় মামলা না করে সালিশী বৈঠকের মাধ্যমে আপোষ রফার চেষ্ঠা করে। এতে কাজ না হওযায় শিশুটির বাবা রোববার রাতে শিশুটিকে নিয়ে থানায় এসে মামলা করে।

সাতক্ষীরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মীর মোদ্দাচ্ছের হোসেন বলেন, আসামীকে গ্রেপ্তার করার চেষ্টা চলছে।
শিশুটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই