মেইন ম্যেনু

ত্বকের রুক্ষতা দূরে ব্যবহার করতে পারেন হাইড্রেটিং মাস্ক

আবহাওয়ার কারণে ত্বক শুষ্ক, রুক্ষ হয়ে পড়ে। এটি শীতকালে বেশি হলেও বাতাসের আর্দতার কারণে সারাবছর ত্বক রুক্ষ, শুষ্ক হয়ে যায়। বিশেষ করে শুষ্ক ত্বকের অধিকারীদের এই সমস্যা বেশি পড়তে হয়। হাইড্রেটিং মাস্ক ত্বক ময়েশ্চরাইজ করে ত্বক নরম, কোমল করে তোলে। বাজারে নানান হাইড্রেটিং মাস্ক কিনতে পাওয়া যায়, তবে বাজারের মাস্ক ব্যবহার করার পরিবর্তে ঘরে তৈরি করে নিতে পারেন হাইড্রেটিং মাস্ক। ত্বকের ধরন অনুযায়ী নিজেই তৈরি করে নিন নিজের পছন্দের মাস্কটি।

১। আভাকাডো, ডিম এবং লেবুর রসের মাস্ক

একটি পাকা আভোকাডো, একটি ডিমের সাদা অংশ, এবং এক টেবিল চামচ লেবুর রস। সবগুলো উপাদান একসাথে মিশিয়ে নিন। ত্বক পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। এরপর এটি মুখ এবং ঘাড়ে লাগিয়ে নিন। এই প্যাকটি ত্বকে ম্যাসাজ করুন। ২৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। তারপর কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি তৈলাক্ত ত্বকের জন্য অনেক উপকারী।

২। অ্যালোভেরা, কমলার রস ফেস মাস্ক

এক টেবিল চামচ কমলার রস, এক চা চামচ অ্যালোভেরা জেল একসাথে মিশিয়ে নিন। প্রথমে মুখ পানি দিয়ে পরিষ্কার করে নিন। তারপর এই প্যাকটি মুখ এবং ঘাড়ে লাগান। ২০ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি সপ্তাহে এক বা দুইবার ব্যবহার করুন। এটিও তৈলাক্ত ত্বকের জন্য বেশ কার্যকর।

৩। কলা অথবা আভোকাডো অথবা পিচ অথবা অ্যাপরিকট ফেস মাস্ক

একটি পাকা কলা অথবা ১/২টা পাকা আভাকাডো অথবা একটি পাকা পিচ অথবা ৪টি পাকা অ্যাপরিকটস একসাথে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এই প্যাকটি ত্বকে আঙ্গুল দিয়ে ম্যাসাজ করে লাগিয়ে নিন। ২০ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। তারপর ত্বকে ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন। এটি ত্বকের রুক্ষতা, শুষ্কতা দূর করে দেবে। শুষ্ক ত্বকের অধিকারীরা এই প্যাকটি ব্যবহার করতে পারেন।

৪। শসা এবং অ্যালোভেরা ফেস প্যাক

দুই টেবিল চামচ অ্যালোভেরা জেল এবং অর্ধেকটা শসার রস একসাথে মিশিয়ে নিন। এই প্যাকটি ত্বকে আঙ্গুল দিয়ে ম্যাসাজ করে লাগান। তারপর ৩০ মিনিট অপেক্ষা করুন। শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এটি শুষ্ক ত্বকের অধিকারীরা ব্যবহার করতে পারেন।

৫। ডিম, মধু এবং নারকেল তেলের ফেস প্যাক

একটি ডিম, ১/৪ টেবিল চামচ নারকেল তেল এবং এক টেবিল চামচ মধু একসাথে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি ত্বকে ম্যাসাজ করে লাগান। ২৫ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। নারকেল তেল এবং ডিম ত্বক হাইড্রেটেড করে ত্বক প্রাণবন্ত করে তোলে।






মন্তব্য চালু নেই