মেইন ম্যেনু

থাইল্যান্ডে মন্দিরের সামনে বোমা বিস্ফোরণ, নিহত ২৭

থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককে একটি মন্দিরের সামনে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত ২৭ জন নিহত হয়েছেন বলে স্থানীয় গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।নিহততের মধ্যে বিদেশি পর্যটক রয়েছে। প্রাথমিকভাবে তিন জন বিদেশির নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।তবে তাদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।তবে বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে প্রথমে নিহতের সংখ্যা ১০ জন বলে উল্লেখ করা হয়।

থাইল্যাণ্ডের আয়ের প্রধান খাত হচ্ছে পর্যটন এবং এর পরই রফতানি।মন্দিরে পর্যটকদের ভিড় লেগেই থাকে সাধারণত।

স্থানীয়রা বলছেন- কেউ হামলার দায় স্বীকার না করলেও বিদেশি পর্যটকদের টার্গেট করেই যে হামলা হয়েছে তা অনুমান করা যায়।এর আগে থাইল্যান্ডে এধরণের হামলার খবর পাওয়া যায়নি।

থাইল্যান্ডের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেছেন, পর্যটক এবং অর্থনীতিকে ধ্বংস করার টার্গেট নিয়েই এই হামলা করা হয়েছে।পর পর দুটি বোমা বিস্ফোরণ ঘটে। বোমাগুলো মোটরসাইকেলে রাখা ছিল। একটি অবিস্ফোরিত অবস্থায় পাওয়া যায়। হামলা পর গোটা এলাকা ধোঁয়ায় আচ্ছন্ন হয়ে যায়।এবং ধোঁয়া কেটে যাওয়ার পর দেখা যায় মানুষের বিচ্ছিন্ন হাত-পাসহ শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে।মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

সোমবার বিকেলে ব্যাংককের চিডলম জেলার ইরাওয়ান এলাকায় একটি মন্দিরের সামনে বোমাটি বিস্ফোরিত হয়। এতে আরও কয়েকজন আহত হয়েছেন।

সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে বিস্ফোরণটি ঘটে। ঘটনার পরপরই সেখানে উদ্ধার তৎপরতা শুরু হয়। বিস্ফোরণের পর ঘটনাস্থলে হতাহতদের দেহ পড়ে থাকতে দেখা গেছে।

থাই পুলিশের মুখপাত্র লেফটেনেন্ট জেনারেল প্রাউথ থাভর্নসিরি বোমা বিস্ফোরণের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তবে এ বিষয়ে বেশি কিছু জানাননি তিনি।

ইরাওয়ান এলাকাটি হিন্দু দেবতা ব্রহ্মার উপাসকদের এলাকা হিসেবে পরিচিত। প্রতিনিদই অনেক বৌদ্ধ পূণ্যার্থীও উপাসনালয়টি দেখতে আসেন। ব্যাংককের মূল বাণিজ্যিক এলাকায় অবস্থিত মন্দিরটির কাছে থাই রাজধানীর বড় তিনটি শপিং মল এবং একটি পাঁচ তারকা হোটেল রয়েছে।

বিবিসির সংবাদদাতা জনাথন হেড ব্যাংকক থেকে জানাচ্ছেন রাস্তায় তিনি মানুষের অঙ্গ প্রত্যঙ্গ ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকতে দেখেছেন। ঘটনাস্থলের আশপাশে ব্যাপক আতংক ছড়িয়ে পড়েছে।

মানুষজনের হুড়োহুড়িতে রাস্তায় যানজটের কারণে জরুরি সেবা দিতে আসা অ্যাম্বুলেন্স ও নিরাপত্তা বাহিনীর গাড়ি সেদিকে এগুতে সমস্যা হচ্ছে।

ব্যাংকক খুব জনপ্রিয় একটি পর্যটন কেন্দ্র।প্রতিবছর পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে পর্যটকেরা আসেন বিশেষ করে পশ্চিমা দেশ থেকে।

তাদের মধ্যেও আতংকের খবর আসছে। ইরাওয়ান শ্রাইন স্থাপনার মুল আকর্ষণ চারদিকে মুখ খচিত সোনালী রঙের একটি মূর্তি যেটি হিন্দু ধর্মের ব্রহ্মার একটি রূপ। যাকে থাই ভাষায় প্রা রম বলা হয়।

বৌদ্ধ ধর্মের বহু অনুসারীও প্রতিবছর এখানে প্রার্থনা করতে।এটি থাইল্যান্ডের খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি পর্যটন আকর্ষণও বটে। শহরের কেন্দ্রে রাজপ্রাসং ইন্টারসেকশনের কাছেই এর অবস্থান।

কিছুদিন আগে যে সরকার বিরোধী বিক্ষোভ হয়েছিল সেটি এখানেই হয়েছিল। ব্যাংককে রাজনৈতিক বিক্ষোভ দেখা গেছে কাছাকাছি সময় কিন্তু এধরনের বোমা হামলার ঘটনা বেশ বিরল।






মন্তব্য চালু নেই