মেইন ম্যেনু

থানার ভেতরেই নগ্ন; অতঃপর পুলিশের কান্ড!

ভয়ের চোটে পুলিশ দৌঁড়চ্ছেন, এ দৃশ্য খুব একটা অপরিচিত নয়। তবে কারণের প্রকারভেদে তা মাঝে মাঝে হাস্যকর হয়ে ওঠে। যেমনটা হল মধ্যপ্রদেশের খাণ্ডোয়াতে।

এলাকা দখল নিয়ে দু’ দল হিজড়াদের মধ্যে মারামারির অভিযোগ জানাতে গিয়ে থানায় এমন ‘তাণ্ডব’ করলেন, যে ভয়ে পুলিশকে হাতজোড় করে ক্ষমা চাইতে হল। শুধু তাই নয়, প্রতিবাদ জানাতে তত্ক্ষণাৎ নগ্ন হয়ে খানার ছাদে উঠে পড়েন তাঁরা।

পুলিশ জানিয়েছে, এলাকা দখল নিয়ে কয়েক দিন ধরে দু’ দল কিন্নরে মধ্যে ঝামেলা লেগেই ছিল। কিন্তু মহ্গলবার ঝামেলা অন্য রূপ নেয়। মারামারির সময় ছুরি দিয়ে কয়েক জনকে আঘাত করা হয়। ফলে আক্রান্ত কিন্নরেরা থানায় যান অভিযোগ জানাতে। কিন্তু পুলিশের গড়িমসি দেখে অকথ্য গালিগালাজ শুরু করেন তাঁরা।

কিন্তু হঠাৎ এক জন মহিলা এসআই তাঁদের ভুয়ো বলায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়। থানায় মধ্যেই তাণ্ডব শুরু করেন তাঁরা। চেয়ার-সহ অন্যান্য আসবাবপত্র ছুঁড়ে ফেলতে থাকেন। এর পরই ওই মন্তব্যের প্রতিবাদ করায় তাঁরা পোশাক খুলে নগ্ন হয়ে যান।

বেগতিক বুঝে থানা থেকেই পালাতে থাকেন একের পর এক কনস্টেবল। খানা থেকে বেরিয়ে কনস্টেবলদের ধাওয়া করে ছাদে উঠে নগ্ন অবস্থায় দাঁড়িয়ে থাকেন।

এ সময় তাঁদের হাতজোড় করে অনুরোধ করেন অন্যান্য পুলিশকর্মীরা। ওসি কন্ট্রোলরুমে ফোন করে ঘটনা জানানোর পর সিএসপি থানায় আসেন।কিন্তু প্রতিবাদ তখনও চলছে সমানে। তিনি ঘটনার তদন্ত করে দোষীদের গ্রেফতারের আশ্বাস দিলে তখনকার মতো পরিস্থিতি শান্ত হয়।






মন্তব্য চালু নেই