মেইন ম্যেনু

থার্টি ফার্স্ট উদযাপন করবেন না প্রিয়তি

প্রায় ১৪ বছর ধরে আয়ারল্যান্ডে বসবাস করছেন বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত মাকসুদা আক্তার প্রিয়তি। গ্ল্যামার আর মেধা দিয়ে ২০১৪ সালে নির্বাচিত হয়েছেন ‘মিজ আয়ারল্যান্ড’। সম্প্রতি ‘মিজ আর্থ’ প্রতিযোগিতায় রানার-আপ হয়ে আলোচিত হয়েছেন তিনি। অভিনয় করছেন আয়ারল্যান্ডের সিনেমায়, হলিউড-বলিউডের সিনেমায়ও অভিনয়ের প্রস্তাব পেয়েছেন। বিশ্বজয়ী এই তারকা এবারের থার্টি ফার্স্ট উদযাপন করবেন না বলে জানিয়েছেন।

প্রিয়তি বলেন, ‘পৃথিবীর অনেক মানুষ এখনো ভালো কাপড় পরতে পারে না। ভালো খাবার খেতে পারে না। আর আমরা কেবল মাত্র এক রাতে কোটি কোটি ডলার খরচ করছি। যখন শীতে বস্ত্রহীন হয়ে কষ্ট পাচ্ছে মানুষ তখন আমার পক্ষে থার্টি ফার্স্ট উদযাপন করা সম্ভব নয়।’

Priyoti-iner-2

বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত এই আয়ারল্যান্ড সুন্দরী আরও বলেন, ‘থার্টি ফার্স্ট নিয়ে আমরা আনন্দ করতেই পারি। কিন্তু সঙ্গে যদি বঞ্চিত মানুষগুলোর কথা একটু ভাবি তবে আমাদের আনন্দটা ভিন্নমাত্রার হতে পারে। সবাই যদি তাদের পাশের কিছু মানুষকে নতুন বছরের প্রথম দিনে একটু সাহায্য করেন। যারা শীতে কষ্ট পাচ্ছেন তাদের শীতবস্ত্র কিনে দেন। তবে আমরা সবাই মিলে অন্যরকম একটা থার্টি ফার্স্ট উদযাপন করতে পারি।’

সবাইকে নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানিয়ে এই গ্ল্যামার কন্যা বলেন, ‘আমরা একে অপরের কথা ভাবলে আমাদের পৃথিবীটা আরও সুন্দর হতে পারে। সবাই মিলে আমরা ভালো থাকতে পারি। নতুন বছরে আমরা সবাই যেন একসঙ্গে ভালো থাকতে পারি।’

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের আলাপচারিতায় পাঠকদের নতুন বছরের অগ্রিম শুভেচ্ছা জানান প্রিয়তি। শীঘ্রই বাংলাদেশে আসবেন বলেও জানান এই তারকা।

ঢাকার ফার্মগেট এলাকার মেয়ে প্রিয়তি ১৪ বছর আগে পড়াশুনা করতে আয়ারল্যান্ডে পাড়ি জমান। সেখানে পড়ার ফাঁকে মডেলিং শুরু করেন। ২০১৪ সালে ‘মিজ আয়ারল্যান্ড’ প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হন। ২০১৫ সালে ‘মিজ আর্থ’ প্রতিযোগিতায় রানার-আপ হন। পেশায় আয়ারল্যান্ডে বিমান চালনার সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন এই তারকা।






মন্তব্য চালু নেই