মেইন ম্যেনু

দম্পতির মাঝে ‘নগ্ন অবস্থা’য় খাটে অচেনা ব্যক্তি, অত:পর…

আজ থেকে অনেক আগে এক সময় খাটের নিচে চোর এসে লুকিয়ে থাকার গল্প আমরা ছোটবেলায় অনেক শুনেছি। আগেকারদিনে রাতে শোওয়ার আগে চৌকির নিচটা একবার সকলেই দেখে নিতেন। তবে অস্ট্রেলিয়ায় যা ঘটেছে তা কেউ কল্পনাও করতে পারবেন না।

কারণ দেশটির সিডনিতে স্যাকভিল স্ট্রিটের একটি বাড়িতে এক দম্পতি ভোরবেলা ঘুম থেকে উঠে একেবারে আঁতকে উঠেছেন। বলা যায় দম বন্ধ হয়ে যাওয়ার জোগাড়। কেটি ও ক্রিস নামের দম্পতি দেখেন, শোওয়ার খাটে তাঁদেরই সঙ্গে একটি অচেনা ব্যক্তি সম্পূর্ণ নগ্ন অবস্থায় শুয়ে রয়েছে। ঘটনায় তাজ্জব বনে গিয়েছেন ওই দম্পতি।

কেটি নামের ওই মহিলা জানিয়েছেন, সকালে ঘুম ভেঙে তিনি দেখেন, তাঁর স্বামী ক্রিস একপাশে, মাঝে তিনি ও তার পাশে একেবারে উলঙ্গ অবস্থায় একটি লোক শুয়ে রয়েছে। জানা গিয়েছে, কয়েকবার ডাকাডাকির পরেই লোকটি উঠে বসে। পালাতে গেলে ক্রিসের সঙ্গে ধ্বস্তাধস্তি হয়।

এরপর এই ফাঁকে কেটি পুলিশকে ফোন করে ডেকে আনেন। এরপরে পুলিশ এসে উলঙ্গ ব্যক্তিটিকে গ্রেফতার করে। পুলিশ জানিয়েছে, সেসময়ে পুলিশ ভ্যানের মধ্যে একেবারে সিঁটিয়ে ছিল ওই ব্যক্তি।

তবে, চুরি বা অন্য কোনও উদ্দেশে নয়৷ অতিরিক্ত নেশা করার ফলেই সে এই কাজ করেছে বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন৷ এই ঘটনায় হতবাক ওই দম্পতি৷ তবে, কী করে ওই ব্যক্তি তাঁদের স্যাকভিল স্ট্রিটের বাড়িতে ঢুকল তা এখনও অজানা৷






মন্তব্য চালু নেই