মেইন ম্যেনু

‘দরজায় গিয়ে পুলিশ বলবে, ভালো আছেন তো?’

চলতি বছরের মধ্যে রাজধানীর প্রত্যেকটি মহল্লার সব ঘরে পুলিশ গিয়ে দরজায় কড়া নেড়ে বলবে, আপনি ভালো আছেন তো? আপনাকে কোনো সাহায্য করতে পারি?

শনিবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে ডিএমপি কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া এ কথা বলেন।

‘ইমপ্রুভ ইনস্টিটিউশন রেসপন্সেস টু চিলড্রেন কনফ্লিক্ট কন্টাক্ট উইথ ল’ কর্মসূচির উদ্বোধন উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে অপরাজেয় বাংলাদেশ। অনুষ্ঠানে কর্মসূচির ওপর মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অপরাজেয় বাংলাদেশের নির্বাহী পরিচালক ওয়াহিদা বানু।

মো. আছাদুজ্জামান মিয়া আরো বলেন, ‘ঢাকা মহানগরীতে এ কাজটি আমি শুরু করেছি। উঠোন বৈঠক করেছি। ইতিমধ্যে মন্ত্রী ও আমাদের কর্মকর্তারা এভাবে যাওয়া শুরু করেছেন। এজন্য সামাজিক আন্দোলন করতে হবে।’

ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘আজ রাস্তায় ট্রাফিক আইনের কথা বলছি। কিন্তু কেউ মানে না। একদিনে এটি মানাতে পারব না। আমি শুরু করেছি, উল্টো পথে গাড়ি চালানো যাবে না। স্টিকার দিয়ে, হাইড্রোলিক হর্ন দিয়ে গাড়ি চালানো বন্ধসহ সবকিছু একসঙ্গে সমাধান করা যাবে না।’

বাবা-মাকে হত্যা করা ঐশীর উদাহরণ টেনে ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘শিশুদের অধিকার সবক্ষেত্রে আন্তরিকভাবে দেখতে হবে। ইদানিং শিশুরা অনেক বড় অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে। তাদের কাউন্সেলিং করা দরকার। এজন্য সবার সহযোগিতা দরকার। সামাজিক, রাজনৈতিক ও ধর্মীয় নেতা-কর্মীকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।’

অপরাজেয় বাংলাদেশের উপদেষ্টা ড. ইনামুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন- সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট উম্মে কুলসুম স্মৃতি, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব আবু তাহের।






মন্তব্য চালু নেই