মেইন ম্যেনু

দাঁতের পোকা লক্ষণ ও প্রতিরোধ

দাঁতে গর্ত বা ক্যাভিটি সম্পর্কে আমাদের ধারণা আছে। এ ধরনের সমস্যা অনেকেরই হয়। তবে দাঁতে পোকা লাগার কারণে গর্ত হয় বলে অনেকে মনে করেন। অথবা দাঁতে পোকা হয়েছে বলে মনে করেন। এ নিয়ে আমাদের চিন্তার শেষ থাকে না। একবার ভাবুন তো, দাঁতের যতটুকু অংশ দেখা যায় সেখানে যদি পোকা সাইজের কোনো কিছু থাকে তাহলে কী হতে পারে?

সুখবর হচ্ছে, দাঁতে পোকা থাকার কোনো উপস্থিতি বিজ্ঞানীরা পাননি। দাঁতে পোকা হয় এ বিষয়টি আসলে ভ্রান্ত। তাহলে অনেকের মনে প্রশ্ন আসতে পারে দাঁতে যদি পোকা না থাকে তাহলে এই গর্ত হয় কেন?

আমরা প্রতিদিন যে খাবার খাই তার কিছু অংশ দাঁতের ফাঁকে বা মুখে থেকে যায়, জমা হয়ে থাকে। এই জমা খাবার মুখে বসবাসরত বিভিন্ন ধরনের ব্যাকটেরিয়ার সঙ্গে মিশে এক প্রকার এসিড তৈরি করে; যা দাঁতের অ্যানামেলকে নষ্ট করে। সেখান থেকে ডেন্টাল ক্যারিজ শুরু হয় এবং তা থেকেই দাঁতের গর্ত হয়।

চিনি মেশানো দুধ, মিষ্টিজাতীয় খাবার দাঁতের ওপর ডেন্টাল প্লাক তৈরি করে; যা জিবাণুযুক্ত। আর এই প্লাককেই এ রোগের অন্যতম প্রভাবক বলে মনে করা হয়।

লক্ষণঃ

দাঁতে প্রথম এই ছোট গর্ত দেখা যায়। এটি ধীরে ধীরে বড় হয় এবং তা পরবর্তীকালে প্রদাহজনিত রোগে রূপান্তরিত হয়। এ সময় বেশ ব্যথা অনুভূত হয়।

প্রতিরোধঃ

যেকোনো খাবার গ্রহণের পর ভালোভাবে কুলকুচি করবেন। ব্রাশ করার পাশাপাশি ডেন্টাল ফ্লশ ব্যবহার করতে পারেন। এতে এ ধরনের সমস্যা অনেকখানি এড়াতে পারবেন। আর বেশি সমস্যা মনে হলে অবহেলা না করে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। দাঁতের যত্ন নিন, ভালো থাকুন।






মন্তব্য চালু নেই