মেইন ম্যেনু

দাঁতে দাগের কারণে হাসতে পারছেন না? মেনে চলুন সহজ ৮ টি নিয়ম

হাসি অনেক রোগ নিরাময় করে। হাসি হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়, মানসিক চাপ কমায়। কোনো বিষয়ে টেনশন কমিয়ে আনার একমাত্র উপায় হাসি। কিন্তু এমন অনেকেই আছেন যারা হাসতে পারেন না শুধুমাত্র তাদের দাঁতে নানা ধরনের দাগের কারণে। এই ধরনের দাগ বিভিন্ন কারণে হতে পারে।তবে মেনে চলুন কয়েকটি নিয়ম তাহলেই পারবেন প্রাণ খুলে হাসতে।

হাসতে পারার কিছু টিপস জেনে নিন-

১) অতিরিক্ত ভারী এবং রঙিন খাবার খাওয়া বন্ধ করুন। বন্ধ করুন অতিরিক্ত চা এবং কফি খাওয়া। এগুলোদাঁতে দাগ তৈরি করে।

২) অ্যালকোহল জাতীয় পানীয় একেবারেই খাবেন না। এই জাতীয় পানীয় দাঁতে গাঢ় দাগ করে ফেলে। ফলে আপনি হাসতে পারবেন না একেবারেই।

৩) কিছু কিছু ফল আছে যেগুলো দাঁতের দাগ দূর করতে সহায়তা করে। এগুলো দাঁতে ঝকঝকে ভাব আনে। যেমন আপনি চাইলে স্ট্রবেরীর সাথে বেকিং সোডা মিশিয়ে টুথপেস্টের সাথে ব্যবহার করতে পারেন। এতে করে স্ট্রবেরীর অ্যাসিড দাঁতের বিভিন্ন দাগ দূর করতে সহায়তা করবে। ফলে আপনি প্রাণ খুলে হাসতে পারবেন।

৪) সিগারেটের নিকোটিন দাঁতে খুব বাজে ধরনের দাগ তৈরি করে। দাঁতের দাগ দূরীকরণে সিগারেট খাওয়া একেবারেই ছেড়ে দিতে হবে।

৫) দাঁতের দাগ নির্মূলে গরম কফির পরিবর্তে বরফ চা, কোকাকোলা এবং পাইপের মাধ্যমে বিভিন্ন ফলের জুস খেতে পারেন। এতে অনেকটাই উপকার পাবেন এবং মুখ খুলে হাসতে পারবেন।

৬) ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে দিনে অন্তত দুইবার ব্রাশ করুন। প্রয়োজনে মাড়ি ম্যাসেজ করুন। এতেও দাঁতের দাগ অনেকটা নির্মূল হবে।

৭) প্রতি ৬ মাস পর পর আপনার ডেন্টিস্টের কাছ থেকে দাঁতের চেক আপ করে আসুন এবং একটি ভালো টুথব্রাশ ব্যবহার করুন।

৮) প্রতিবার খাবারের পর কুলকুচা করুন। ডাক্তারের পরামর্শ মত মাউথওয়াশ দিয়ে অথবা হালকা গরম লবণ পানি দিয়ে কুলকুচা করতে পারেন। এতেও দাঁতের দাগ কমবে এবং আপনি প্রাণ খুলে হাসতে পারবেন।






মন্তব্য চালু নেই