মেইন ম্যেনু

দাঁত ব্রাশের যে ৫ টি ভুলে ক্ষয় হচ্ছে আপনার দাঁত !

প্রতিদিন অন্তত ২ বার দাঁত ব্রাশ করা অত্যন্ত জরুরী এই বিষয়টি আমরা সকলেই জানি। এবং নিজেরা অনেকেই এই নিয়মটি পালন করেন ও ঘরের ছোটো শিশুদের শেখান। কিন্তু কোন নিয়মে এবং কীভাবে দাঁত ব্রাশ করছেন তার দিকে কি নজর দিচ্ছেন? আপনি হয়তো ভাবছেন দুইবার দাঁত ব্রাশ করেই দাঁত সুস্থ রাখছেন আপনি। কিন্তু আপনার দাঁত ব্রাশের ভুলের কারণেই ক্ষতি হচ্ছে আপনার মূল্যবান দাঁতের। প্রতিবার ভুল ব্রাশের কারণে ক্ষয় হচ্ছে আপনার দাঁতের। তাই সতর্ক হোন এবং এই ভুলগুলো এড়িয়ে চলার চেষ্টা করুন।

১) শক্ত ব্রিসলের ব্রাশ

রাস্তার ধারে বিক্রয় করা ১০-১৫ টাকা দামের ব্রাশ কিনে ভাবছেন টাকা বাঁচিয়ে ফেললেন। কিন্তু দাঁতের ক্ষতির কারণে যে আপনাকে হাজার হাজার টাকা খরচ করতে হবে তা কি ভেবেছেন? এই ব্রাশগুলোর ব্রিসল অনেক শক্ত থাকে যা দাঁতের উপরের এনামেলের ক্ষতি করে। তাই দাম দিয়ে হলেও একটু নামী ব্র্যান্ডের ভালো নরম ব্রিসলের ব্রাশ ব্যবহার করুন।

২) খুব বেশি জোরে ব্রাশ করেন

অনেকে মনে করে জোরে জোরে ব্রাশ করলে দাঁতের ময়লা ভালো করে পরিষ্কার হবে এবং বেশি দ্রুত পরিষ্কার হবে। আর এতেই ক্ষতিটা হয় বেশি। খুব বেশি জোরে ব্রাশ করতে গেলে দাঁতের এনামেল ভেঙ্গে যাবার ঝুঁকি থাকে।

৩) অনেক বেশি সময় ধরে ব্রাশ করছেন

অনেকের ধারণা অনেকটা সময় ধরে ব্রাশ করলে দাঁত পরিষ্কার হবে ভালো করেই। কিন্তু এটি সম্পূর্ণ ভুল একটি ধারণা। প্রতিটা জিনিসেরই একটি নির্দিষ্ট সময় রয়েছে। ২ মিনিটের বেশি দাঁত ব্রাশ করা দাঁতের জন্য ক্ষতিকর।

৪) খাওয়ার ঠিক পরপরই দাঁত ব্রাশ করে ফেলা

অনেক অতিরিক্ত সচেতন মানুষ দাঁতের সুরক্ষায় খাওয়ার পরপরই দাঁত ব্রাশ করে ফেলেন যা উল্টো দাঁতের ক্ষতিই করে বেশি। খাওয়ার পরপর বিশেষ করে অ্যাসিডিক খাবার ও ফলমূল খাওয়ার পরপর দাঁত ব্রাশ করলে দাঁত ক্ষয় হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। খাওয়ার পরপর কুলকুচা করে, খাওয়ার অন্তত ৩০ থেকে ১ ঘণ্টা পর দাঁত ব্রাশ করুন।

৫) দাঁত সাদা করার জন্য আপনি ভুল টুথপেস্ট বেছে নিচ্ছেন

দাঁতের ক্ষয় রোধের জন্য যেমন সঠিক ব্রাশ প্রয়োজন ঠিক তেমনই প্রয়োজন সঠিক টুথপেস্টের। সঠিক উপাদানের টুথপেস্ট একটু বেশি দাম দেখে না কিনে যেন তেন টুথপেস্ট দিয়ে দিনে দুবার ব্রাশ করেও দাঁত রক্ষা করতে পারবেন না একেবারেই। সুতরাং সতর্ক হোন নিজের জন্যই।

সূত্রঃ দ্য টাইমস অফ ইন্ডিয়া






মন্তব্য চালু নেই