মেইন ম্যেনু

দাউদকান্দিতে খাস জমি ভরাটকালে ৪ জনকে সাজা দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত

কুমিল্লার দাউদকান্দির গৌরীপুরে ১৩ জুলাই সোমবার দুপুরে সরকারি খাস জমি ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে ভরাটকালে ভ্রামম্যাণ আদালত বিভিন্ন মেয়াদে ৪ জনকে সাজা প্রদান করেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ মাসুদুর রহমান মোল্লার নির্দেশে ৪জনকে গ্রেফতার করে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা প্রদান করা হয়।

এ সময় দাউদকান্দি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আবু ছালাম মিয়া, গৌরীপুর তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এস.আই আসাদুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন। সাজাপ্রাপ্তরা হলো দাউদকান্দি উপজেলার পেন্নাই গ্রামের মোঃ সহিদ মিয়ার পুত্র মনির হোসেন (৩০)-সাজার মেয়াদ ৬ মাস, মাইথারদিয়া গ্রামের আঃ ছালাম মিয়ার পুত্র মমেনুল ইসলাম (৩২)-সাজার মেয়াদ ১ মাস, গৌরীপুর বাজারের মৃত নরেন্দ্র চন্দ্র ভৌমিক এর পুত্র সুনীল চন্দ্র ভৌমিক (৪৯)-সাজার মেয়াদ ১৫ দিন ও মাইথারকান্দি গ্রামের মৃত ওমর আলীর পুত্র আঃ কালাম (৩৬)-সাজার মেয়াদ ১ মাস। তাদের সকলকে সাজা প্রদান করে কুমিল্লা জেল হাজতে প্রেরণ করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

উল্লেখ্য যে, দাউদকান্দির প্রায় সর্বত্রই চলছে খাস জমি খাল, ডোবা, পুকরু ভরাটের মহোৎসব। বিশেষ করে গৌরীপুরে একশ্রেণীর লোক দাপটের সঙ্গে চালাচ্ছে এই অবৈধ দখল তথা ভরাট প্রক্রিয়া। যার ফলে ভয়াবহ জলাবদ্ধতাসহ পরিবেশ বিপর্যয় সৃষ্টি হয়েছে এখানে। এব্যাপারে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক গৌরীপুরের এক ব্যবসায়ী বলেন,‘খাস জমি, ডোবা, খাল ও পুকুর এলাকার কয়েকটি সিন্ডিকেট অবৈধভাবে দখল ও ভরাটর করার মাধ্যমে মহাবাণিজ্য চালিয়ে যাচ্ছে। জনগণের বারোটা বাজলেও তাদের এদিকে ভ্রুক্ষেপ নেই। তাদের চাই, টাকা আরও টাকা’। তিনি আরো বলেন, ‘প্রশাসন যদি ইচ্ছা করেন, এসব সমস্যা সমাধান সময়ের ব্যাপার মাত্র’।






মন্তব্য চালু নেই