মেইন ম্যেনু

দাবদাহে পুড়ছে দেশ, খবর নেই বৃষ্টির

তীব্র দাবদাহে পুড়ছে দেশ। প্রচণ্ড গরমে অস্থির মানুষ আকাশপানে তাকিয়ে আছে এক পশলা বৃষ্টির জন্য। আকাশে মেঘের ঘটঘটায় আশার সঞ্চার হলেও বৃষ্টির দেখা না মেলায় থেমে যাচ্ছে সেই স্বস্তি। ঘরে-বাইরে কোথাও নেই স্বস্তি। বিশেষ করে গরমে অস্থির হয়ে পড়েছে নগরজীবন। সোমবার সকালে আকাশে কোথাও কোথাও কালো মেঘের ভেলা ভেসে বেড়ালেও বৃষ্টির সম্ভাবনা অনেকটাই ক্ষীণ বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। এর ফলে আরও কয়েকদিন গরম সহ্য করতে নগরবাসীকে।

সোমবার সকালে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে দেখা গেছে, আকাশে মেঘের ভেলা ভেসে বেড়ালেও আজও কোথাও বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই। আবহাওয়া প্রধানত শুষ্কই থাকবে। তাপমাত্রাও কমার সম্ভাবনা নেই বলে আবহাওয়ার রিপোর্টে বলা হয়েছে।

আজ সকাল ৭টায় ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্র রেকর্ড করা হয়েছে ২৮.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে তাপের তীব্রতা বাড়তে থাকবে।

গতকাল ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল ৩৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তার আগের দিন এই তাপমাত্রা ছিল ৩৬ দশমিক ৪। বেশ কিছুদিন ধরে বৃষ্টি না হওয়ার কারণেই একদিনের ব্যবধানে প্রায় ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা বেড়ে গেছে।

গত ১৮ এপ্রিল ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৩ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস, আর সর্বনিম্ন ২৮। পরদিন অর্থাৎ ১৯ এপ্রিল সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, সর্বনিম্ন ২৭ দশমিক ৫ ডিগ্রি।

২০ এপ্রিল সর্বোচ্চ ৩৫ দশমিক ৯ এবং সর্বনিম্ন ২৭ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ২১ এপ্রিল সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৫ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন ২৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বোচ্চ ৩৬ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছিল গত ২২ এপ্রিল। এদিন ঢাকায় সর্বোনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৮ দশমিক ২।

গতকাল দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল যশোরে, ৪১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২২ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলিসিয়াস ছিল রংপুরে।

এদিকে রবিবার সন্ধ্যা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হচ্ছে, লঘুচাপের বর্ধিতাংশ ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। আর এ মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। এর ফলে সিলেট ও চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং বরিশাল বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ী দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে। এছাড়া দেশের অন্যত্র আকাশ অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলাসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। পরবর্তী ৭২ ঘণ্টার আবহাওয়ায় তাপপ্রবাহ পরিস্থিতি অব্যাহত থাকতে পারে।






মন্তব্য চালু নেই