মেইন ম্যেনু

দিনমজুরের ছেলে এখন ১০০ কোটির ব্যবসায়ী

৪২ বছর বয়সী মুস্তাফা নিজেকে একজন সফল ব্যবসায়ী বলতে পারেন। এই বছর তার বার্ষিক আয় ১০০ কোটি ভারতীয় রুপি।

শুনতে অনেক সোজা মনে হলেও তার জীবনে অনেক কষ্ট করতে হয়েছে। মুস্তাফা একজন দিনমজুরের ছেলে। তার বাবা অনেক কষ্ট করে তাকে পড়াশোনা করিয়েছেন। মুস্তাফা ষষ্ঠ শ্রেণীতে ফেল করার পর তার বাবাকে সাহায্য করার জন্য পড়াশোনা ছেড়ে দিয়ে কাজ করার চিন্তা করেন। তখন তাকে তার স্কুলের গণিত শিক্ষক ম্যাথিউ এই বিষয়ে আরেকবার ভাবার কথা বলেন। কারণ তার গণিত অনেক ভাল ছিল।

তারপর সে তার চিন্তা বদল করে পড়াশোনা শুরু করেন। তারপরের বছর তিনি প্রথম স্থান অর্জন করে সপ্তম শ্রেণীতে উন্নীত হন। তারপর থেকে সে তার সম্পূর্ণ পড়াশুনা প্রথম স্থানে থেকেই সম্পন্ন করেন।

গ্রাম থেকে প্রতিদিন চার কিলোমিটার পথ হেঁটে তার বিদ্যালয়ে যেতে হত। তার গ্রামের বাড়িতে বিদ্যুৎ ছিল না। আবার, ছুটির দিনে সে তার বাবাকে সাহায্য করতেন। এভাবেই তার বাল্যকাল শেষ হয়।

মুস্তাফা তার ইঞ্জিনিয়ারিং পড়া সম্পন্ন করে মটরোলা ও সিটিব্যাংকে চাকরী করেন। তারপর তিনি দুবাইয়ের একটি কোম্পানিতে চাকরী করেন। সেখানে তিনি তার চাকরী ছেড়ে দিয়ে নিজে ব্যবসায়ী হবার সিদ্ধান্ত নেন। তারপর সে মাত্র ২৫,০০০ টাকা নিয়ে তার খাবার রপ্তানির ব্যবসা শুরু করেন। তিনি ভারতের জনপ্রিয় খাবার ইডলি ও ডোসা বিভিন্ন স্থানে রফতানি করেন। প্রথমে তিনি ছোট আকারে তার ব্যবসা শুরু করেন, তখন প্রতিদিন ২০ টি দোকানে ১০০ প্যাকেট খাবার সরবরাহ করেন।

বর্তমানে তার বাৎসরিক আয় ১০০ কোটি রুপি এবং ১,১০০ জন মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিয়েছেন। আগামী পাঁচ থেকে ছয় বছরের মধ্যে তার লক্ষ্য থাকবে ১,০০০ কোটি রুপি বাৎসরিক আয় সংগ্রহ করা।–সূত্র: ইন্ডিয়া টাইম্‌স।






মন্তব্য চালু নেই