মেইন ম্যেনু

দিনে ৮ ঘণ্টার বেশি কাজ ডেকে আনে মৃত্যু

দিনে আট ঘণ্টা কর্মদিবসের দাবিতে আন্দোলন এখন শুধুই ইতিহাস। শ্রম আইন অনুযায়ী, সরকারি ও বেসরকারি ক্ষেত্রে কর্মচারীদের দৈনিক কাজের স্বীকৃত সময় আট ঘণ্টা।

তবে সেই আট ঘণ্টাই নয় এমনকী ১০-১২ ঘণ্টাতেও রূপান্তরিত হয় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে। কিছু জায়গায় কর্মদিবস আট ঘণ্টা নির্ধারিত থাকলেও ‘বস’কে খুশি রাখতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা চলে কাজ।

যে কারণেই হোক, যারা দিনে আট ঘণ্টার বেশি সময় অফিসে কাটান, তাদের জন্য কিন্তু ভবিষ্যতে অপেক্ষা করছে সমূহ বিপদ। তার জন্য মৃত্যু সংকেত। একটি সমীক্ষা বলছে, দিনে আট ঘণ্টার বেশি কাজ করলে ত্বরান্বিত হবে মৃত্যু।

ঘণ্টার নিরিখে কতটা সময় কাজ করলে তা শরীরের পক্ষে ক্ষতিকর হতে পারে তা নিয়ে গবেষণা চালানো হয়েছে। প্রায় ৬ লাখ মানুষের ওপর সমীক্ষা চালিয়ে দেখা গেছে, যারা সপ্তাহে ৫৫ ঘণ্টা বা তার বেশি সময় কাজ করেন, তাদের মধ্যে বেড়ে যায় স্ট্রোক হওয়ার সম্ভাবনা।

স্বাভাবিক যে কাজের সময় অর্থাত্‍‌ যারা সপ্তাহে ৩৫ থেকে ৪০ ঘণ্টা কাজ করেন, তাদের থেকে অধিক সময় অফিসে কাটানো কর্মীদের স্ট্রোক হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায় ৩৩%। শুধু তাই নয়, ১৩% ক্ষেত্রে বেড়ে যায় হার্টের সমস্যাও।

গত ৯ বছর ধরে ইউরোপ, আমেরিকা ও অস্ট্রেলিয়ার ৬,০৩,৮৩৮ জন পুরুষ ও মহিলা কর্মীদের ওপর ২৫টি সমীক্ষা চালানো হয়েছে। তারই সম্মিলিত ফল প্রকাশিত হয়েছে এই সমীক্ষায়।

লন্ডন ইউনিভার্সিটি কলেজের অধ্যাপক মিকা কিভিমাকি এই সমীক্ষা চালিয়েছেন।






মন্তব্য চালু নেই