মেইন ম্যেনু

দুই ঘণ্টা পর মুক্ত মেয়র আনিসুল

দুই ঘণ্টার বেশি সময় অবরুদ্ধ থাকার পর মুক্ত হলেন উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হক। শনিবার দুপুর দুইটার দিকে রাজধানীর তেজগাঁওয়ে অবৈধ ট্রাকস্ট্যান্ড উচ্ছেদ অভিযান চলাকালে পুলিশের সঙ্গে শ্রমিকদের দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়। এতে একজন গুলিবিদ্ধসহ তিনজন আহত হয়। এ সময় ঢাকা বাংলাদেশ ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান ড্রাইভার্স ইউনিয়ন অফিসের ভেতর অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন উত্তরের মেয়র।

পরে শ্রমিক ইউনিয়নের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক শেষে বিকাল সাড়ে চারটার দিকে অবরুদ্ধ অবস্থা থেকে মুক্তি পান মেয়র। পুলিশ ও র‌্যাব সদস্যদের কড়া প্রহরায় তিনি তেজগাঁও এলাকা ত্যাগ করেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রবিবার দুপুরে সিটি করপোরেশনের লোকজন ট্রাকস্ট্যান্ড উচ্ছেদের অভিযান শুরু করেন। এ সময় সেখানে ছিলেন রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক ও ঢাকা উত্তরের মেয়র আনিসুল হক। উচ্ছেদ অভিযান শুরুর কিছুক্ষণ পরই চালক ও স্থানীয় লোকজন উচ্ছেদকারীদের ওপর ইট পাটকেল ছুঁড়তে শুরু করেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে ও মন্ত্রী-মেয়রকে রক্ষা করতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী গুলি চালায়। এতে এক ট্রাকচালকসহ তিনজন আহত হন।

এদিকে, অভিযানের শুরুর দিকে মেয়র আনিসুল হক ঘোষণা দেন যেকোনো মূল্যে রাস্তার ওপর থেকে অবৈধ ট্রাক স্ট্যান্ড সরানো হবে। এটা জনগণের অধিকার।

মেয়র জানান, তিনি কোনো অন্যায়ের কাছে মাথা নত করবেন না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং নগরীর জনগণ তার সঙ্গে আছেন বলেও জানান উত্তরের মেয়র।

তবে অবরুদ্ধ অবস্থা থেকে বের হওয়ার সময় তিনি শ্রমিকদের উদ্দেশে বলেন, “রাস্তা অবৈধ দখলমুক্ত করে এইখানে ট্রাক রাখার জন্য টার্মিনাল করা হবে। আমি আপনাদের ভোটে মেয়র হয়েছি। আমি কারো শত্রু না। আপনারা আমার সন্তান, আপনারা আমার ভাই। আপনারা আমার সঙ্গে থাকুন।”






মন্তব্য চালু নেই