মেইন ম্যেনু

দুই বিদেশি হত্যার ঘটনা ‘নাথিং’

দুই বিদেশি হত্যার ঘটনা নাথিং (কিছু না), আমেরিকায় এর চেয়ে বেশি খুন হয়। এটা নিয়ে হইচই করার কিছু দেখিনা। আমাদের দেশের লোকজনওতো বিদেশে মারা যায় বলে মন্তব্য করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। ‘বাংলাদেশে ল’ অ্যান্ড অর্ডার ইজ ওয়ান্ডারফুল’, বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

ওয়ার্ল্ড ব্যাংক এবং আইএমএফ দীর্ঘ ২৫ দিন সফর শেষে রোববার সচিবালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন তিনি।

শনিবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ ভ্রমণে মার্কিন নাগরিকদের আবারো সতর্ক করে দিয়েছে ঢাকায় আমেরিকান দূতাবাস। বাংলাদেশে পশ্চিমা নাগরিকদের উপর আবার সন্ত্রাসী হামলা হতে পারে, তাদের কাছে এমন নির্ভরযোগ্য তথ্য রয়েছে বলে মার্কিন দূতাবাস জানিয়েছে।

বাংলাদেশে মার্কিন নাগরিকদের চলাফেরা সতর্কতা জারি বিষয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘গত সাত বছর ধরে বাংলাদেশে মার্কিন পলিসি স্বস্তিদায়ক নয়। মার্কিন পলিসি পরিবর্তন হবে বলে আমার মনে হয় না।’

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া সম্পর্কে এক প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘বেগম জিয়া লন্ডনে অবস্থান করবেন কিনা আমি জানি না। তবে তার সকল কৌশল ব্যর্থ হয়েছে।’

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের সম্পর্কে আবুল মাল মুহিত বলেন, ‘শিক্ষকরা একটা বিশেষ অবস্থানে পৌছেছেন এটা দুঃখজনক। এটা নিয়ে কিছু বলতে চাই না। বিষয়টা নিয়ে শিক্ষমন্ত্রী তাদের (শিক্ষকদের) সঙ্গে বসেছেন।’

সফর প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ওয়ার্ল্ড ব্যাংকের কাছে ৫০০ মিলিয়ন ডলার চাওয়া হয়েছিল, তারা ২৫০ ডলার দিতে রাজি হয়েছে।’






মন্তব্য চালু নেই