মেইন ম্যেনু

দুধ উৎপাদনে কলারোয়াকে মডেল উপজেলা হিসাবে গড়ে তোলার আহবান

কামরুল হাসান, কলারোয়া : প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর খুলনা বিভাগীয় উপ পরিচালক ডা. আবুল কালাম বলেছেন, ডেয়ারী ফার্ম থেকে বেশি বেশি দুধ পেতে হলে গাভীকে বেশি পারিমাণ সুষম খাদ্য খেতে দিতে হবে। গাভীর জন্য সুষম খাদ্য হচ্ছে কাঁচা ঘাস। তিনি বলেন, কাঁচা ঘাসের মধ্যে গরুর সমস্ত প্রকারের পুষ্টিগুণ আছে। সঠিক ভাবে ঘাস চাষ করবেন, রক্ষনাবেক্ষন করবেন এবং সঠিক ভাবে খাওয়াবেন। দুধ উৎপাদনে এই কলারোয়াকে একটি মডেল উপজেলা হিসাবে গড়ে তুলতে হবে। কারণ প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের বাড়ি এই কলারোয়াতে।

তিনি বৃহস্পতিবার সকালে ফডার গবেষণা ও উন্নয়ন প্রকল্প বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনষ্টিটিউট, সাভার এর অর্থায়নে, কলারোয়া উপজেলা প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর আয়োজিত প্রশিক্ষণ কর্মশালার সমাপনী দিনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথাগুলো বলেন।

উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ এএসএম আতিকুজ্জামান এর সভাপতিত্বে কর্মশালায় বক্তৃতা করেন বিএলআরআই সাভার’র প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. নাথুরাম সরকার,সাতক্ষীরা জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. শশাংক কুমার মন্ডল, বিএলআরআই সাভার’র সিনিয়র সাইন্টিফিক কর্মকতা ড. আহসান হাবিব, খামারীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আঃ আলীম, ময়না খাতুন প্রমুখ। অনুষ্ঠানে কলারোয়া গাভী খামারী কবি আজগর আলী একটি স্বরচিত কবিতা পাঠ করে শোনান। প্রশিক্ষণ কর্মশালায় নেপিয়ার, জাম্বু,পারাঘাস, জার্মাান ঘাসসহ বিভিন্নি প্রকারের ঘাসের চাষাবাদ, রক্ষনাবেক্ষন ও এর সর্বোত্তম ব্যবহার সম্পর্কে হাতে কলমে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়।

প্রশিক্ষণ কর্মসূচিতে কলারোয়ার ৫০ জন নারী-পুরুষ খামারী অংশ গ্রহণ করেন। প্রশিক্ষণ শেষে খামারীদের মধ্যে উন্নত নেপিয়ার ঘাসের কাটিং বিতরণ করা হয়।






মন্তব্য চালু নেই