মেইন ম্যেনু

দুপুরের আগেই ৮ প্রার্থীর ভোট বর্জন

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের প্রথম দফায় ভোট বর্জন করেছেন আট চেয়ারম্যান প্রার্থী। মঙ্গলবার সকালে ভোট শুরুর পর কারচুপির অভিযোগ এনে তারা নির্বাচন বর্জন করেন। ভোট বর্জনকারীদের মধ্যে বিএনপি মনোনীত প্রার্থীদের সংখ্যাই বেশি। তবে এ তালিকায় আওয়ামী লীগের প্রার্থীও রয়েছে।

প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

লক্ষ্মীপুর: লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার ৪ ইউনিয়নে বিএনপির প্রার্থীরা ভোট বর্জন করেছেন। দলীয় সিদ্ধান্তে তারা ভোট বর্জন করেন। মঙ্গলবার সোয়া ১১টার দিকে কমলনগর প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে তারা ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন।

এসময় উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও পাটোয়ারিরহাট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী অধ্যাপক জামাল উদ্দিন তালুকদার বলেন, সরকারদলীয় লোকজন ককটেল বিস্ফোরণ করে কেন্দ্র দখল করে আমার এজেন্টদের মারধর করে বের করে দেয়। এতে আমার বেশ কয়েকজন কর্মী-সমর্থক আহত হন। এমন পরিস্থিতিতে দলীয় সিদ্ধান্তে বিএনপি নির্বাচন বর্জন করে।

বর্জনকারী বিএনপির প্রার্থীরা হলেন- হাজিরহাট ইউনিয়নের ফরহাদ হোসেন মিয়া, চরফলকন ইউনিয়নের আবদুল ওদুদ হাওলাদার, পাটোয়ারীরহাট ইউনিয়নে অধ্যাপক জামাল উদ্দিন তালুকদার ও তোরাবগঞ্জ ইউনিয়নে মো. মোসলেহ উদ্দিন।

ভোলা: ভোলা সদরের বাপ্তা ও বোরহানউদ্দিনের কাচিয়া ইউনিয়নে বিএনপি ও আওয়ামী লীগের তিন চেয়ারম্যান প্রার্থী ভোট বর্জন করেছেন। মঙ্গলবার সকালে সংবাদ সম্মেলন করে তারা ভোট বর্জন করেন।

চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন, ভোলা সদরের বাপ্তা ইউনিয়নের বিএনপি প্রার্থী হাসান তৌফিক রিহিন, বোরহানউদ্দিন উপজেলার কাচিয়া ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থী নুরুল আমিন নীরব ও একই ইউনিয়নের বিএনপির প্রার্থী শেখ সাদী হাওলাদার।

ভোটকেন্দ্রে প্রভাব বিস্তার, জাল ভোট ও কেন্দ্র থেকে এজেন্টদের বের করে দেওয়ার অভিযোগে তারা ভোট বর্জন করেন।

কক্সবাজার: ভোট ডাকাতির অভিযোগে কুতুবদিয়া উপজেলার আলী আকবর ডেইল ইউনিয়নে বিএনপি দলীয়  প্রার্থী ফিরোজ খান চৌধুরী ভোটবর্জন করেছেন। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ধানের শীষের প্রার্থী এ তথ্য বাংলানিউজকে জানান।

বিএনপি প্রার্থী জানান, আলী আকবর ডেইল ইউনিয়নের ৯টি কেন্দ্রের মধ্যে ৭টি কেন্দ্র থেকেই ধানের শীষের এজেন্টদের মারধর করে বের করে দিয়েছে ক্ষমতাসীন দলের লোকজন। এতে পুলিশ ও প্রশাসনের সহযোগিতা রয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

প্রার্থী ফিরোজ খানের বড় ভাই কুতুবদিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান এ টি এম নুরুল বশর চৌধুরী জানান, সোমবার থেকে সরকার দলীয় এমপি আশেক উল্লাহ রফিক কুতুবদিয়ায় অবস্থান করছেন। তিনি প্রশাসনকে প্রভাবিত করে নির্বাচনে কারচুপির পূর্ব পরিকল্পনা করেছেন। তার প্রতিফলন দেখা যায় মঙ্গলবার ভোটগ্রহণ শুরুর পর।তিনি অভিযোগ করেন, নৌকা প্রতীকের প্রার্থী নুরুচ্ছফা বি কম এর লোকজন পূর্ব আলী আকবর ডেইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ইফাদ সাইক্লোন সেন্টার, খুদিয়ার টেক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পূর্ব তবালের চর রেড ক্রিসেন্ট সাইক্লোন সেন্টারসহ ৭টি কেন্দ্র দখল করে নিয়েছে। পুলিশ, প্রশাসন, নৌকার প্রার্থী, এমপি এরা সবাই মিলে ভোট ডাকাতি করছে।  ফলে বর্জন করা ছাড়া আর কোন উপায় ছিল না।

বরিশাল: কেন্দ্র দখল, জাল ভোট দেওয়া ও কেন্দ্র থেকে এজেন্টদের বের করে দেওয়ার অভিযোগে বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার দড়িজর খাজুরিয়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী নির্বাচন বর্জন করেছেন। মঙ্গলবার সকালে তিনি ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন।

ভোট বর্জন করা প্রার্থী আব্দুল কাদের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বিদ্রোহী প্রার্থী (স্বতন্ত্র) আনারস মার্কার মো. মোস্তফা রাঢ়ী স্থানীয় এমপি পঙ্কজ নাথের ক্ষমতায় কেন্দ্রে প্রভাব বিস্তার করছে। আমার এজেন্টদের বের করে দিয়ে কেন্দ্র দখল করে জালভোট দিচ্ছে, এ কারণে আমি ভোট বর্জন করেছি।






মন্তব্য চালু নেই