মেইন ম্যেনু

দুর্গাপুরে মাসব্যাপি শিশু অধিকার বিষয়ে প্রচারাভিযান সম্পন্ন

নেত্রকোনা জেলার দুর্গাপুর উপজেলায় গতকাল, রুরাল আরবান চাইল্ড মাইগ্রেশান প্রজেক্ট লিংক, কমিউনিটি পর্যায়ে ‘‘শিশুর অনিরাপদ স্থানান্তরের ঝুঁকি’’ হ্রাস করণ বিষয়ক মাসব্যাপী শিশুর অনিরাপদ স্থানান্তর বিষয়ক গণসচেতনতা বৃদ্ধিমূলক প্রচারাভিযান শেষ হয়েছে।

সেভ দ্য চিলড্রেন ইউরোপীয় ইউনিয়নের আর্থিক সহায়তায় রুরাল আরবান চাইল্ড মাইগ্রেশান নামে একটি প্রকল্প উদ্দীপন ও বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা আইনজীবি পরিষদের সহায়তায় বাংলাদেশের ২৪ টি ইউনিয়ন ও ১০টি আরবান ওয়ার্ডে এ কর্মসূচী চালিয়ে যাচ্ছে। সে লক্ষে দুর্গাপুর সদর ইউনিয়নের মেনকী, কুল্লাগড়া ইউনিয়নের গাড়াউন্দ ও বিরিশিরি ইউনিয়নের শিরবির সঃ প্রাঃ বিদ্যালয়ে এই কার্যক্রমের ধারাবাহিকতায় দুর্গাপুর উপজেলায় ৩টি ইউনিয়নে সোসাইটি ফর আন্ডার প্রিভিলেজড্ ফ্যামিলিজ (সাফ), স্থানীয় সরকার ইউনিয়ন পরিষদ আইন ২০০৯ শিশুর অধিকার ও সুরক্ষার বিষয়ে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহনের জন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, এলাকাবাসী, আইন শৃঙ্খলা বাহিনী, শিক্ষক -শিক্ষার্থী, সাংবাদিক, জি ও, এনজিও ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের নিয়ে গ্রাম থেকে শহরে গমনকে নিরাপদ করা এবং শিশুর অধিকার নিশ্চিত করার লক্ষ্যে শিশুর নিবন্ধন চালু করা বাধ্যতামূলক ও গনসচেতনতা বৃদ্ধি বিষয়ক অলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা শিক্ষা অফিসার বিনয় চন্দ্র শর্ম্মা, উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা মোঃ আলাল উদ্দিন, ইউ.পি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রুহু, সাইদুর রহমান পাঠান, শিক্ষক দুলাল চক্রবর্ত্তী, লুৎফর রহমান, পরমেশ সরকার, মোঃ নজরুল ইসলাম, রহিমা আক্তার জ্যোতি, আঃ গনি, মোঃ গিয়াস উদ্দিন, মহিলা সদস্যা বিশাখা রাংসা, আমেনা খাতুন, সমলা বেগম, সাংবাদিক সাহাদাত হোসেন কাজল, এস এম রফিকুল ইসলাম রফিক, এন,সি সরকার, এসএমসি সভাপতি মোঃ জামাল উদ্দিন, মোঃ সিরাজুল ইসলাম প্রমূখ।

কিভাবে একটি পরিবার অসহায়ত্বের স্বীকার হয়, কিভাবে শিশুরা নির্যাতন ও স্থানান্তরিত হতে বাধ্য হয় নাটকে সে বিষয় গুলো উঠে আসে। শিশুরা স্থানান্তর হলেও যেন নিরাপদে থাকতে পারে তার জন্য সরকারের নির্দেশিত নিয়ম অনুযায়ী ইউনিয়ন পরিষদে কিভাবে নিবন্ধন করতে হয় এবং নিবন্ধন করলে কি সুবিধা পাওয়া যায় তা অভিনয়ের মাধ্যমে তুলে ধরা হয়।






মন্তব্য চালু নেই