মেইন ম্যেনু

দুর্দান্ত খেলে শিরোপা জিতলো চট্টগ্রাম আবাহনী

ইস্ট বেঙ্গলকে হারিয়ে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপের প্রথম আসরের শিরোপা জিতেছে চট্টগ্রাম আবাহনী। ফাইনালে কলকাতার ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটিকে ৩-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে শফিকুল ইসলাম মানিকের দল।

এই জয়ে শিরোপা ঘরে তোলার পাশাপাশি গ্রুপ পর্বে ইস্ট বেঙ্গলের কাছে হারের মধুর প্রতিশোধও নিল চট্টগ্রাম আবাহনী।

চ্যাম্পিয়নদের হয়ে জোড়া গোল করেছেন দলের নাইজেরিয়ান তারকা এলিটা কিংসলে। অপর গোলটি আসে জাতীয় দলের তারকা হেমন্ত ভিনসেন্ত বিশ্বাসের হেড থেকে।

চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টা ৪০ মিনিটে শুরু হয় ম্যাচটি। গ্যালারিভরা স্বাগতিক দর্শকের স্তব্ধ করে এগিয়ে গিয়েছিল কিন্তু ইস্ট বেঙ্গলই। যদিও লিডটা নিতে পারতো স্বাগতিকরা।

ম্যাচের দশম মিনিটে কিংসলের ক্রস থেকে মিঠুন চৌধুরী মাথা ছোঁয়াতে পারলেই গোল, কিন্তু ব্যর্থ হন মিঠুন। ফিরতি আক্রমণেই এগিয়ে যায় অতিথিরা। অভিনব বাগের একটি শটে বল স্বাগতিক খেলোয়াড় রেজাউল করিমের মাথায় লেগে পোষ্টের কোণা দিয়ে জালে জড়িয়ে যায়।

শুরুর ধাক্কা সামলে নিয়ে চট্টগ্রাম আবাহনী বেশ কিছু সুযোগ তৈরি করেও কাজে লাগাতে ব্যর্থ হচ্ছিল। ৪৩ মিনিটে অধিনায়ক জাহিদ হাসানের বাঁকানো শট রুখে দেন অতিথি গোলরক্ষক। তবে প্রথমার্ধের অতিরিক্ত সময়ে স্বাগতিকদের ১-১ সমতায় ফেরান কিংসলে। মিঠুনের ক্রস থেকে হেডে ইস্ট বেঙ্গলের জালে বল জড়ান এই নাইজেরিয়ান তারকা।

এরপর দ্বিতীয়ার্ধে তো দারুণভাবে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় চট্টগ্রাম আবাহনী। চার মিনিটের ব্যবধানে ইস্ট বেঙ্গলের জালে দুবার বল জড়ায় স্বাগতিকরা। ৫৪ মিনিটে নিজের দ্বিতীয় গোলে চট্টগ্রাম আবাহনীকে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে দেন কিংসলে। তিন মিনিট পর স্কোরলাইন ৩-১ করেন হেমন্ত। এই গোলেও অবদান কিংসলের। তার ক্রস থেকেই হেডে ইস্ট বেঙ্গলের জালে বল জড়িয়ে দেন হেমন্ত।

ম্যাচের বাকি সময়ে ইস্ট বেঙ্গলের বেশ কিছু আক্রমণ রুখে দেন চট্টগ্রাম আবাহনীর গোলরক্ষক রাসেল মাহমুদ। শেষ পর্যন্ত তাই ৩-১ গোলের জয়েই শিরোপার উৎসবে মাতে স্বাগতিক দল। গোটা দেশও নয় কি?






মন্তব্য চালু নেই