মেইন ম্যেনু

দুর্বৃত্তদের এসিডে দগ্ধ গৃহবধূ, স্বামী আটক

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এসিড নিক্ষেপ করে তানিয়া আক্তার (৩০) নামে এক গৃহবধূর শরীর ঝলসে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে পৌর শহরের দক্ষিণ মৌড়াইল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তানিয়া দক্ষিণ মৌড়াইল এলাকার নজরুল ইসলামের স্ত্রী। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠনো হয়েছে।

এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে তানিয়ার স্বামী নজরুল ইসলামকে আটক করেছে পুলিশ। এদিকে তানিয়াকে উদ্ধার করতে গিয়ে তার প্রতিবেশী নীলা রহমান (২৭) আহত হয়েছেন। তাকে জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

তানিয়ার পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, রাত সাড়ে ৯টার দিকে তানিয়া তার নিজ ঘরের টয়লেট থেকে বের হওয়ার সময় রান্নঘর থেকে অজ্ঞাত দুই যুবক তাকে লক্ষ্য করে এসিড নিক্ষেপ করে। এ সময় তানিয়া মাটিতে লুটিয়ে চিকৎকার শুরু করে। পরে তার আর্তচিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা ঘটনাস্থলে ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তানিয়াকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢামেক হাসপাতালে প্রেরণ করেন। এ ঘটনায় তানিয়ার প্রতিবেশী নীলা রহমানও আহত হয়েছেন।

সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. ফাইজুর রহমান ফয়েজ জানান, তানিয়ার শরীরের প্রায় ৩০ শতাংশ পুড়ে গেছে। প্রাথমিকভাবে তার শরীরে এসিড নিক্ষেপ করা হয়েছে বলেই ধারণা করা হচ্ছে। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

তবে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মঈনুর রহমান বলেন, দীর্ঘদিন ধরে পারিবারিক নানা বিষয় নিয়ে তানিয়ার সঙ্গে তার স্বামীর কলহ চলে আসছিল। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের তানিয়ার স্বামী নজরুল ইসলামকে আটক করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই