মেইন ম্যেনু

দুশ্চিন্তা দূর করুন সহজ ৫টি উপায়ে

দুশ্চিন্তা করতে কেউ চায় না। তাও দুশ্চিন্তা চলে আসে। বিশেষত কোন সমস্যায় পড়লে দুশ্চিন্তা হওয়াটাই স্বাভাবিক। কিন্তু অনেকেই সমস্যায় পড়লে মাথা ঠান্ডা রাখতে পারেন না, শুরু করে দেন দুশ্চিন্তা করা। আর এই দুশ্চিন্তা থেকে উৎপত্তি হয়ে থাকে উচ্চ রক্তচাপ থেকে শুরু করে আরও নানা রোগ ব্যাধি। তাই দুশ্চিন্তাকে দূরে রাখুন। আর দুশ্চিন্তাকে দূরে রাখতে করুন এই কাজগুলো।
১। হাসুন

দুশ্চিন্তার সময় হাসাটা বেশ কঠিন, কিন্তু এই কঠিন কাজটি আপনার চিন্তা কমাতে সাহায্য করবে। Karen Lynn Cassidaypresident-elect of the Anxiety and Depression Association of America and a clinical psychologist in Chicago বলেন “ দুশ্চিন্তার সময়ে কিছু মজার কৌতুক পড়ন এবং হাসুন। এমনকি আপনি যদি মিথ্যা হাসিও হেসে থাকেন, এটি আপনার মস্তিষ্কে ডোপামিন উৎপাদন করবে যা আপনার অনুভূতি, চিন্তাকে নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করবে”।
২। গ্রীন টি

Mark Blumenthal মনে করেন গ্রীন টিতে এল-থিয়ানিন নামক অ্যামিনো অ্যাসিড আছে যা আপনাকে রিল্যাক্স হতে সাহায্য করে। এটি রক্তচাপ এবং হার্টবিট নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। অতিরিক্ত দুশ্চিন্তার সময় গ্রীন টি পান করুন।
৩। ওমেগা থ্রি যুক্ত খাবার খাওয়া

বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে ওমেগা থ্রিতে ফ্যাটি অ্যাসিড আছে যা স্ট্রেস নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। সামুদ্রিক মাছ যেমন স্যামন, টুনা, কাজুবাদামে প্রচুর পরিমাণে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড রয়েছে। এই খাবারগুলো স্ট্রেসের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে করটিসলের মাত্রা, ঘুমের অভ্যাস পরিবর্তন করে দিয়ে থাকে।
৪। সুঘ্রাণ গ্রহণ

এক গবেষণায় দেখা গেছে যারা ল্যাভেন্ডার অয়েল ম্যাসাজ করছেন তারা দ্রুত চিন্তামুক্ত হয়ে থাকেন। আপনার ঘুমানোর বালিশে কয়েক ফোঁটা ল্যাভেন্ডার অয়েল লাগিয়ে রাখেন অথবা গোসলের পানিতে কয়েক ফোঁটা ল্যাভেন্ডার অয়েল ব্যবহার করুন। এছাড়া কয়েক ফোঁটা ল্যাভেন্ডার অয়েল পানিতে মিশিয়ে জ্বাল দিন এবার এটি দিয়ে শ্বাস গ্রহণ করুন। এছাড়াও নারকেল তেল বা জবা ফুলের তেল মাথায় ম্যাসাজ করলেও অনেক উপকার পাওয়া যায়।
৫। কফি খাওয়া বন্ধ করুন

ক্যাফিন আপনার এ্যানার্জি বৃদ্ধি করে উদ্বিগ্ন বৃদ্ধি করে থাকে। দুশ্চিন্তার সময় কফি, ক্যাফিন জাতীয় খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। এর পরিবর্তে গ্রীন টি পান করতে পারেন।

শত চেষ্টা করেও দুশ্চিন্তা থেকে নিজেকে মুক্তি রাখা সম্ভব নয়। কিন্তু অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। দুশ্চিন্তা কম করুন, সুস্থ থাকুন।






মন্তব্য চালু নেই