মেইন ম্যেনু

দূরের যাত্রায় মূল্যবান জিনিস নিরাপদ রাখবেন যেভাবে

দূরের যাত্রায় টাকা হারানোর দুশ্চিন্তা থাকে সকলের। কোথায় রাখবেন টাকা বা মূল্যবান অলংকার! যদি ঘুমিয়ে পড়েন? এর ফাঁকে সুযোগ বুঝে চোর যদি নিয়ে যায় সবকিছু? বেড়ানো তো মাটি হবেই, তার আগে হয়ত ভাবতে হবে- এবার তাহলে কীভাবে বাড়ি ফিরবেন! ঘটনা ঘটে যাওয়ার পর পস্তানোর চেয়ে আসুন বরং এমন উপায় বের করি যাতে চোর কোন সুযোগই না পায়, আর মূল্যবান জিনিসের সুরক্ষার চিন্তা থেকে মুক্ত হয়ে আপনি নিশ্চিন্তে ঘুমিয়ে পড়তে পারেন প্লেন বা বাসের সিটে।

মানি বেল্টস
এটা টাকা লুকানোর বেশ পুরাতন একটি বুদ্ধি। সাধারণত একটা ব্যাগ বা থলের মত হয়, যা কোমড়ে বেল্টের সাথে আটকানো থাকে। ব্যাগটিতে আপনি টাকা, পাসপোর্ট এবং ছোটখাট জিনিস রাখতে পারবেন। অনায়াসে জামার নিচে ফিট হয়ে যাবে এটি। তবে সমস্যা হল, আইডিয়াটি পুরাতন হওয়ায় চোর, ছিনতাইকারীদেতাকাছে পরিচিত হয়ে গেছে। অনেক ছিনতাই এর ঘটনায় দেখা গেছে শার্ট তুলে কোমড়ে বেল্ট পড়ে আছে কিনা চেক করে দূর্বৃত্তরা।

ওয়েস্ট পাউচেস
এটা মানি বেল্টের মতোই একটা ব্যাগ। প্যান্টের বেল্টের সমান্তরালে থাকবে এটি। তবে ভেতরের দিকে। একদম পাতলা এই পাউচেসগুলো কিনতে পারেন, আবার নিজেও বানিয়ে নিতে পারেন। তবে কেনার সুবিধা হল, বেল্টটা ভালো হবে আর এটাতে এমন সিস্টেম থাকে যেতে আপনার ট্রাউজারের সাথে ঠিকমত সেট হয়। ব্যাগটিতে অবশ্য স্বল্প কয়েকটি নোট রাখতে পারবেন, এর বেশী কিছু নয়।

নেক পাউচেস
ছোট একটি ব্যাগ, যা ঝুলবে আপনার গলায়, থাকবে শার্টের ভেতরে। এগুলো শার্ট বা টপের সাথে ভাল কাজে দেয় যেগুলোর গলার ডিজাইনটা লেগে থাকে গলার সাথেই। দুই রকম সাইজের পাওয়া নেক পাউচেস। একটা বড়। যার মধ্যে টাকা এবং পাসপোর্ট সবই ধরবে। আরেকটা ছোট সাইজের যেখানে নিতে পারবেন শুধু টাকা। তবে এসব ব্যাগে অল্প জিনিস নেওয়াই ভাল।শুধু সেই টাকা বা মূল্যবান জিনিস যা হারালে খুব সমস্যা হয়ে যাবে। কারণ যত জিনিস ঢোকাবেন তত ভারী হবে আপনার ব্যাগ। আর দেখাও যাবে তাহলে।

পা এবং আর্ম ওয়ালেট
পা এবং বাহুতে পাতলা ওয়ালেট ব্যবহার করতে পারেন। টাকাগুলো সোজা করে রাখবেন। এরকম ওয়ালেট খুব পাতলা হয়, তাই আর কিছু রাখা যাবে না। সেক্ষেত্রে একাধিক ওয়ালেট ব্যবহার করতে পারেন। পাতলা কাপড়ের ওয়ালেটগুলো বেশী আরামদায়ক হবে। কারণ ওয়ালেট ভারি হলে পরে থাকতে অস্বস্তি তো হবেই, একইসাথে দেখা যাওয়ার সম্ভাবনাও থাকবে।

এন্টি থেফট ওয়ালেট
মানিব্যাগ চুরি, পকেট কাটা এধরণের ঘটনা ঘটে হরহামেশাই। প্যান্টের পেছনের পকেট থেকে মানিব্যাগ হারানো গেছে এমন ঘটনার সম্মুখীন হন নি সেটাই অস্বাভাবিক। কিছু কোম্পানি এধরণের পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্যই তৈরি করেছে এন্টি থেফট ওয়ালেট। এইসব মানিব্যাগে একটা চিকন চেইন লাগানো থাকে। এই চেইনটি এমনভাবে প্যান্টের ভেতর দিয়ে আপনার বেল্টে লাগানো থাকবে যে বাইরে থেকে দেখা যাবে না। চেইনটি আটকানো যাবে বেল্টের সাথে বা ব্যাগের সাথে। এর দৈর্ঘ্য মাত্র কয়েক ইঞ্চি যাতে কেউ টান দিলেই টের পেয়ে যান আপনি।

নিজের মূল্যবান জিনিস সুরক্ষিত রাখতে নিজেই সচেতন হন। এরকম সুরক্ষা পণ্য ক্রয় করুন বা বানিয়ে নিন। ভ্রমণ হোক নিশ্চিন্ত, নিরাপদ।






মন্তব্য চালু নেই