মেইন ম্যেনু

দেশের উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করছে সিপিডি: বাণিজ্যমন্ত্রী

বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি) কোনো দিন বাংলাদেশের ভালো কাজের প্রশংসা করেনি। বরং বাংলাদেশ উন্নয়ন থেকে পিছিয়ে যাক সেই কাজ করে আসছে বলে মন্তব্য করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ।

আজ বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, সিপিডি বলেছিল ২০২৪ সালের আগে বাংলাদেশ নিম্ন-মাধ্যম আয়ের দেশে যেতে পারবে না। কিন্তু তার আগেই আমরা পেরেছি। এশিয়ার পাঁচটি দেশের মধ্যে বাংলাদেশ এগিয়ে। আর পাকিস্তান সব বিষয়ে বাংলাদেশের চেয়ে পিছিয়ে রয়েছে। আবার ভারত কোনো কোনো ক্ষেত্রে বাংলদেশের চেয়ে পিছিয়ে রয়েছে। তারপরও সিপিডি আমাদের ভালো কাজ দেখে না। তারা যে রিপোর্ট প্রকাশ করেছে তা সঠিক নয় বলে দাবি করেন এই আওয়ামী লীগ নেতা।

মন্ত্রী বলেন, আমরা দেশের জন্য কাজ করি। আজকের বাংলাদেশ কোথায় ছিল। বর্তমানে কোথায় দাঁড়িয়েছে। ডব্লিউটিও সম্মেলনে বাংলাদেশ যে যে দাবি তুলেছে তার সবই পেয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, সিপিডির নির্বাহী পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমানের সাথে আমি কথা বলেছি। তখন তিনি বলেন আমরা তো বাংলাদেশ নিয়ে কথা বলিনি। বলেছি স্বল্পোন্নত দেশ নিয়ে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, গত ১৪ ডিসেম্বর নাইরোবিতে স্বল্পোন্নত দেশগুলো বাণিজ্যমন্ত্রীদের একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে বাণিজ্যমন্ত্রী হিসেবে আমি সভাপতিত্ব করি। সভায় শুল্কমুক্ত বাজার সুবিধাসংক্রান্ত সিদ্ধান্তগুলো অন্তর্ভুক্ত করা হয়। দেশীয় শিল্পের স্বার্থ ক্ষুণ্ন হতে পারে- এমন কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি।

তিনি বলেন, বহুপক্ষীয় বাণিজ্য ব্যবস্থায় আমদানি শুল্কসহ নানা অশুল্ক বাধাগুলো হ্রাস পাচ্ছে। ফলে আমদানি শুল্ক আরোপের মাধ্যমে দেশীয় শিল্পের স্বার্থ সংরক্ষণের সুযোগ কমে যাচ্ছে। মুক্তবাজার অর্থনীতির ফলে সৃষ্ট প্রতিযোগিতামূলক বাজারব্যবস্থা একদিকে যেমন রাষ্ট্রগুলোকে বিশ্ব বাণিজ্যে টিকে থাকার সুযোগ করে দিয়েছে, তেমনি অনেক সময় এ প্রতিযোগিতার কারণে স্বল্প রপ্তানিসক্ষম দেশগুলোর দেশীয় শিল্প ক্ষতিগ্রস্ত করছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হেদায়েতুল্লাহ আল মামুন, এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি আবদুল মাতলুব আহমাদ।






মন্তব্য চালু নেই