মেইন ম্যেনু

দেশে কৃত্রিম গণতন্ত্র চলছে: নাগরিক সমাজ

দেশে এখন কৃত্রিম গণতন্ত্র চলছে বলে অভিমত দিয়েছেন বিশিষ্ট নাগরিকরা। মঙ্গলবার রাজধানীর ব্র্যাক ইন সেন্টারে উদ্বিগ্ন নাগরিক সমাজ আয়োজিত এক গোলটেবিল আলোচনায় বক্তারা দ্রুত একটি কমিশন গঠন করে সাংবিধানিক সংস্কার করার পরামর্শ দিয়েছেন।

‘পূর্ণ গণতন্ত্রের জন্য ক্ষমতার নিয়ন্ত্রণ ও ভারসাম্য’ বিষয়ক এই আলোচনায় সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও উদ্বিগ্ন নাগরিক সমাজের আহ্বায়ক ড. এ টি এম শামসুল হুদা বলেন, যখন যে সরকার আসে ক্ষমতা দীর্ঘায়িত করতে তারা বিভিন্ন তৎপরতা দেখায়। কোনো অস্থায়ী উদ্যোগে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত করা যাবে না।

তিনি আরও বলেন, এই সমস্যার গভীরে যেতে হবে। আর গণতন্ত্রকে আমরা একটা নির্বাচনী গণতন্ত্রের মধ্যে নিয়ে এসেছি। নির্বাচনী গণতন্ত্র হচ্ছে পূর্ণ গণতন্ত্রের প্রথম ধাপ। যে সরকারই ক্ষমতায় আসুক ওইগুলা আর করেন না। ক্ষমতায় এলেই বরং ওই ধরনের কাজ না করে অন্য ব্যবস্থায় কী করে ক্ষমতাকে দীর্ঘায়িত করা যায় সেই প্রচেষ্টাই করে।

সংবিধান বিশেষজ্ঞ ড. শাহদীন মালিক বলেন, সবকিছুতে প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতা এত বেশি যে দেশে রাষ্ট্রপতি পদটির কোনো প্রয়োজনীয়তা নেই।

রাষ্ট্রবিজ্ঞানী রওনক জাহান বলেন, কয়েকটি সংসদে আমরা দেখেছি, যে দলই বিরোধী দলে থাকছে তারাই সংসদে না এসে রাস্তায় রাজনীতি করছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর ভার যাদের আমরা দিচ্ছি তারা তাদের ভূমিকাটা পালন করছেন না। আগে তো ওইটাই ঠিক করতে হবে।






মন্তব্য চালু নেই