মেইন ম্যেনু

দেশে ফিরছেন কে, সাকিব না মুস্তাফিজ?

শীর্ষস্থানটা দীর্ঘ সময় ধরে রাখলেও শেষ পর্যন্ত শীর্ষে থাকতে পারলো না সানরাইজার্স হায়দারাবাদ। শেষ ম্যাচে কেকেআরের কাছে হেরে মুস্তাফিজুর রহমানের সানরাইজার্স হায়দারাবাদকে হতে হলো তৃতীয়। আর মুস্তাফিজদের হারিয়ে শেষ চার নিশ্চিত করেছে সাকিবের কলকাতা। এবার ইলিমিনেটর রাউন্ড অথ্যাৎ প্লে-অফে আবারও মুখোমুখি হচ্ছেন সাকিব আল হাসান এবং মুস্তাফিজুর রহমান। যেটাকে বলা যায় নকআউট পর্ব। কারণ হারলেই বিদায়। সে হিসেবে ফাইনালে ওঠার আগেই দেশে ফিরতে হবে সাকিব অথবা মুস্তাফিজকে।

এই দুই দলের যে জিতবে, তার আবার ফাইনাল নিশ্চিত হবে না সরাসরি। ফাইনালে ওঠার জন্য তাদের মুখোমুখি হতে হবে গুজরাটের বিপক্ষে। সুতরাং, ইলিমিনেটর রাউন্ড থেকে কে বিদায় নেবে? সাকিব না মুস্তাফিজ?

পরিসংখ্যান কিন্তু সাকিব আল হাসানের কেকেআরের পক্ষেই কথা বলছে। কারণ, গ্রুপ পর্বে দু’বার মুখোমুখি হয়েছিল দল দু’টি। প্রথম ম্যাচে নিজেদের মাঠেই শাহরুখ খানের দলের কাছে ৮ উইকেটে হারতে হয়েছিল মুস্তাফিজের সানরাইজার্সকে। গ্রুপ পর্বে নিজেদের একেবারে শেষ ম্যাচে কলকাতার ইডেন গার্ডেনে মুখোমুখি হয়েছিল দু’দল। এই ম্যাচের একদিন আগেও পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষেই ছিল সানরাইজার্স। কেকেআরকে হারাতে পারলে শীর্ষে থেকেই শেষ চারে উঠতে পারবে তারা; কিন্তু সাকিব আল হাসানদের কাছে আবারও হারলো মুস্তাফিজরা। এবার পরাজয়ের ব্যবধান ২২ রানে।

তবে টি-টোয়েন্টিতে কখনও পরিসংখ্যান দিয়ে বিচার করা যায় না। দিল্লির ফিরোজ শাহ কোটলায় টসও একটা বড় ফ্যাক্টর হয়ে দাঁড়াবে। সুতরাং, ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে থাকতে হলে ভাগ্যেরও সহায়তা লাগবে। তারওপর, ব্যাটিং-বোলিং এবং ফিল্ডিং- তিন ডিপার্টমেন্টেই যে যাকে ছাড়িয়ে যেতে পারবে, জয় তার অবধারিত। দিনটা হতে পারে সানরাইজার্সেরও। হতে পারে কেকেআরেরও।



(পরের সংবাদ) »



মন্তব্য চালু নেই