মেইন ম্যেনু

দেহের আয়রনের ঘাটতি দূর করুন নাহলে হারাবেন শ্রবণশক্তি

আয়রনের ঘাটতিতে ভুগছেন যারা তাদের সময় থাকতেই সতর্ক হতে হবে। কারণ আয়রনের ঘাটতিতে হারাতে হতে পারে শ্রবণশক্তিও।

এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে হিন্দুস্তান টাইমস।

সম্প্রতি গবেষকরা আয়রনের ঘাটতির সঙ্গে শ্রবণশক্তি হারানোর একটি সম্পর্ক খুঁজে পেয়েছেন। তারা জানিয়েছেন, আয়রনের ঘাটতিতে অ্যানেমিয়া বৃদ্ধি পেয়ে শ্রবণশক্তি হারানোর পর্যায়ে চলে যেতে পারে। আর শ্রবণশক্তি হারানোর পর তা চিকিৎসার মাধ্যমে সারিয়ে তোলা কঠিন। তাই সময় থাকতেই আয়রনের ঘাটতি দূর করার পরামর্শ দিচ্ছেন তারা।

আয়রনের ঘাটতির সঙ্গে শ্রবণশক্তি হারানোর এ বিষয়টি উঠে এসেছে যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভানিয়া স্টেট ইউনিভার্সিটির গবেষণায়। এতে গবেষকরা অনুসন্ধান চালিয়েছেন তিন লাখ পাঁচ হাজারেরও বেশি ব্যক্তির ওপর। মূলত তাদের চিকিৎসা সংক্রান্ত কাগজপত্র বিশ্লেষণেই এ তথ্য জানা গেছে। এতে যাদের তথ্য বিশ্লেষণ করা হয়েছে তাদের বয়স ছিল ২১ থেকে ৯০ বছর। তাদের ৪৩ শতাংশ পুরুষ ও বাকি অংশ নারী ছিলেন। এ ছাড়া অংশগ্রহণকারীদের গড় বয়স ছিল ৫০ বছর।

গবেষকরা জানিয়েছেন, তারা ‘কম্বাইন্ড হেয়ারিং লস’ বা মধ্য কানের হাড়ের যে কোনো সমস্যার কারণে শ্রবণশক্তি নষ্ট হওয়াকে অন্তর্ভুক্ত করেছেন এ গবেষণায়। আর এতেই দেখা গেছে, দেহে আয়রনের ঘাটতি থাকলে শ্রবণশক্তি নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা অনেকাংশে বেড়ে যায়।

আয়রনের ঘাটতি দেখা দিলে শ্রবণশক্তির এ বিষয়টি এখন বেশি করে পরীক্ষা করার কথা বলছেন বিশেষজ্ঞরা। অর্থাৎ আয়রনের ঘাটতি থাকলে শ্রবণশক্তি হারানোর বিষয়টি যেন না ঘটে সে জন্য সতর্ক হতে হবে। প্রয়োজনে এ বিষয়ে চিকিৎসা করতে হবে।

এ বিষয়ে গবেষণাাটির ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে ‘জেএএমএ অটোলারিনগোলজি – হেড অ্যান্ড নেক সার্জারি’ জার্নালে।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই