মেইন ম্যেনু

দেহ ব্যবসা করছে হনুমান-পেঙ্গুইন !

আদিম পেশার মধ্যে দেহ ব্যবসা অন্যতম। এ পেশার চাহিদা শুধু মানুষ-ই বোঝেন না, প্রাণিজগতের মধ্যেও রয়েছে যথেষ্ট আগ্রহ। অবাক লাগলেও এটিই সত্যি। কিছুদিন আগে একদল বিজ্ঞানী ও অর্থনীতিবিদ এক পরীক্ষায় এমন তথ্য পেয়েছেন।

২০০৫ সালে বিজ্ঞানীরা একটি হনুমানের ওপর পরীক্ষা চালান। এতে তারা অনেক কষ্টে হনুমানদের অর্থের কথা বোঝায়। অর্থ কী, তারা তা বোঝানোর চেষ্টা করেন। কীভাবে অর্থ ব্যবহার করা হয়, তাও তারা বোঝান। অবশেষে হনুমানরা অর্থের গুরুত্ব বুঝতে সক্ষম হয়।

অর্থের বিষয়টি হনুমানরা বোঝার পর যা করে, তা জেনে সত্যি খুব অবাক হবেন। পরের চিত্রে দেখা যায়, এক পুরুষ হনুমান স্ত্রী হনুমানকে অর্থের লোভ দেখায়। সেই স্ত্রী হনুমান অর্থের বিনিময়ে যৌনতায় রাজি হয়। অর্থাৎ অর্থের মানে বোঝার পর হনুমানরা সবার আগে দেহব্যবসা শুরু করে।

চলুন এবার জানা যাক পেঙ্গুইনের কথা। কানাডার বেশ কিছু বিজ্ঞানী দাবি করেছেন, পেঙ্গুইনদের মধ্যেও দেহব্যবসার প্রচলন রয়েছে। স্ত্রী পেঙ্গুইনরা খাদ্য ও সুন্দর নুড়ির বিনিময়ে যৌনতায় রাজি হয়। আলাদা কয়েকটি ক্ষেত্রে দেখা গেছে, স্ত্রী পেঙ্গুইন শুধু যৌনবৃত্তি করেই খাবারের ব্যবস্থা করে থাকে।






মন্তব্য চালু নেই