মেইন ম্যেনু

দৈনিক আজকের ভোলার ২০ বছর পূর্তি উপলক্ষে প্রকাশিত স্মারকগ্রন্থের মোড়ক উম্মোচন

ভোলায় দ্বীপ জেলা ভোলার প্রথম দৈনিক আজকের ভোলার ২০ বছর পূর্তি উপলক্ষে প্রকাশিত ‘২ দশকের আজকের ভোলা’ স্মারক গ্রন্থের মোড়ক উম্মোচন করা হয়। মঙ্গলবার বিকালে ভোলা প্রেস ক্লাবে ভবনে মোড়ক উম্মোচন করেন জেলা প্রশাসক মোঃ সেলিম রেজা। অনুষ্ঠানে গেস্ট অব অনার ছিলেন, জেলা পরিষদ প্রশাসক আবদুল মমিন টুলু।

ভোলা প্রেসক্লাবে দৈনিক আজকের ভোলা সম্পাদক আলহাজ্ব মু. শওকাত হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন, সাবেক পৌর মেয়র ও জেলা বিএনপি সভাপতি আলহাজ্ব গোলাম নবী আলমগীর, দৈনিক বাংলার কন্ঠ সম্পাদক এম হাবিবুর রহমান, সমাজসেবী আলহাজ্ব মিয়া মোহাম্মদ ইউনুছ, সমাজসেবী ও ঢাকাস্থ ভোলা উপজেলা সমিতির সভাপতি গোলাম কিবরিয়া জাহাঙ্গীর।

আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন, জেলা তথ্য কর্মকর্তা মোঃ নুরুল আমিন, জেলা জাসদ সভাপতি এ্যাডভোকেট সাজাহান, বিশিষ্ট কলামিস্ট মহিউদ্দিন মাসউদ জনি, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার ও বাসস জেলা প্রতিনিধি মাহাবুবুল আলম নিরব মোল্লা, বাংলানিউজ টুয়েন্টিফোর এর বিশেষ সংবাদদাতা রফিকুল ইসলাম মন্টু, জাতীয় আবৃত্তি পরিষদের বিভাগীয় সভাপতি ও ভোলা প্রেস ক্লাব সম্পাদক সাংবাদিক সামস-উল আলম মিঠু, সাংবাদিক ও প্রভাষক অমিতাভ অপু, শিক্ষক সমিতির সহসভাপতি মু. আবু তাহের, জমিয়াতুল মোদারেছিনের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব মোবাশ্বেরুল হক নাঈম প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপন করেন, দৈনিক আজকের ভোলার নির্বাহী সম্পাদক ও এসএ টিভি জেলা প্রতিনিধি এ্যাডভোকেট সাহাদাত শাহিন। শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন, মাকসউল্ল্যাহ আমিনী।

প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক মোঃ সেলিম রেজা এই স্মারকগ্রন্থকে ভোলার সাংবাদিক লেখক ও সুশিল সমাজের একটি দিকনির্দেশনা হিসেবে উল্লেখ করেন। তিনি এই কাজের জন্য আজকের ভোলার সম্পাদককে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

অন্যান্য আলোচকগণ এক মফস্বল পত্রিকার ২০ বছর পূর্তিতে এ ধরনের একটি জাতীয় মানের সমৃদ্ধ স্মরণীকা প্রকাশকে দেশের সংবাদপত্রের ইতিহাসে স্মরণীয় ঘটনা বলে অভিহিত করেন। তারা বলেন, এর মধ্যে ভোলার ইতিহাস, ঐতিহ্য, সংস্কৃতি, ধর্ম, শিক্ষা ও সমাজকে দেশের সামনে উপস্থাপন করা হয়েছে। যুগযুগ ধরে যার আলোর ধারা অব্যাহত থাকবে। তারা এই অসাধ্য কাজ সম্পূর্ণ করার জন্য সম্পাদকের প্রতি অভিনন্দন জানান।

সভাপতির বক্তব্যে দৈনিক আজকের ভোলার প্রতিষ্ঠাতা ও সম্পাদক আলহাজ্ব মু. শওকাত হোসেন বলেন, ২০ বছর পূর্তি উপলক্ষে এ স্মারকগ্রন্থ প্রকাশিত হলেও এখন পত্রিকার বয়স ২৩ বছর। ৩ বছরের অধিক সময় ব্যয় হয়েছে এই স্মারকগ্রন্থের তথ্য, লেখা সংগ্রহ করতে এবং আধুনিক মানে প্রকাশ করে পাঠকদের হাতে পৌঁছাতে। তিনি জানান, ‘দৈনিক আজকের ভোলা প্রনীত ভোলা জেলার ইতিহাস লেখার কাজ ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে। তথ্য উপাত্ত দিয়ে সহযোগীতার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।






মন্তব্য চালু নেই