মেইন ম্যেনু

ধরা পড়ে গেল রবীন্দ্রনাথের ‘নোবেল চোর’!

২০০৪ সালে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের নোবেল পদক চুরি হওয়ার পরে গঙ্গা দিয়ে অনেক জল বয়ে গিয়েছে। সেই চুরির ঘটনায় অভিযুক্ত এক বাউল শিল্পীকে অবশেষে গ্রেফতার করল পুলিশ। সূত্রের খবর, প্রায় দিন দশেক আগে রূপপুর পঞ্চায়েতের মোলডাঙা গ্রাম থেকে ভোর তিনটের সময়ে সিআইডি-এর ৬ সদস্যের স্পেশাল ইনভেস্টিগেশন টিম বাড়ি থেকে আটক করে প্রদীপ বাউরি নামে ওই বাউল শিল্পীকে।

বিশেষ তদন্তকারী শাখার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, তাঁরা প্রায় নিশ্চিত যে ২০০৪ সালের ২৫ মার্চ নোবেল-চুরির ঘটনার সঙ্গে প্রদীপ বাউল ওতপ্রোতভাবে জড়িত। শুধু তাই নয়, ওই ঘটনায় বাকি অভিযুক্তদের নিজের বাড়িতে আশ্রয় দিয়েছিলেন প্রদীপ। চোরেদের পালানোর সুযোগও তিনিই করে দিয়েছিলেন। ওই বাউলকে ধরার পরে গতকাল তাঁকে শিয়ালদহের ব্যাঙ্কশাল আদালতে তুলে নিজেদের হেফাজতে রেখেছে সিআইডি।

সূত্রের খবর, রবীন্দ্রনাথের নোবেল পদক চুরির মামলায় তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তাঁর কথা থেকে জানা গিয়েছে যে, মহম্মদ হোসেন শিপুল নামে এক বাংলাদেশের নাগরিক এই চুরির মাস্টারমাইন্ড। দুই ইওরোপীয় ব্যক্তিও এই ঘটনায় জড়িত বলে জানা গিয়েছে।

১৯৯৮ থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত শান্তিনিকেতন থানার রূপপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান ছিলেন প্রদীপ বাউরি। সিআইডি অফিসারের পক্ষ থেকে জানানো হয় যে, নার্কো অ্যানালিসিস টেস্টের জন্য গুজরাতে নিয়ে যাওয়া হবে প্রদীপকে।






মন্তব্য চালু নেই