মেইন ম্যেনু

ধর্মকে ব্যবহার করে কোনো ষড়যন্ত্র করতে দেয়া হবে না

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করে এ দেশকে সাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র বানানোর চেষ্টা করা হয়েছিল। ধর্মকে অপব্যবহার করে বিভিন্ন কৌশলে তারা জিঘাংসামূলক জঙ্গিবাদ সৃষ্টি করেছিল। কিন্তু ভবিষ্যতে ধর্মকে ব্যবহার করে কোনো ষড়যন্ত্র করতে দেয়া হবে না।’

জাতীয় শিক্ষা দিবস উপলক্ষে শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর শাহবাগে কেন্দ্রীয় গ্রন্থগারে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন আমু। ছাত্রলীগ এ আলোচনা সভার আয়োজন করে। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন আমু।

ছাত্রলীগ প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে মন্ত্রী বলেন, ছাত্রলীগ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে গঠন করা। তাই দুই চারজনের জন্য ছাত্রলীগকে কলুষিত করা যাবে না। তাদের জন্য কোনো সংগঠন ও প্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে না। সংগঠনকে তাদের বিরুদ্ধে যথাযথভাবে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নিতে হবে।

মন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার ৪০ বছর পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় এসে সুন্দর ও সুষ্ঠু নতুন শিক্ষানীতি প্রণয়ন করেছেন। এই শিক্ষানীতির মাধ্যমে এগিয়ে যাচ্ছে ছাত্রসমাজ। মেধাবী ছাত্রদের এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ করে দিয়েছেন শেখ হাসিনা। অথচ একটি শ্রেণী শেখ হাসিনার শিক্ষানীতিকে বলেছেন শিক্ষাবিরোধী। তারা বলেছে, মাদরাসা শিক্ষা বন্ধ হয়ে যাবে। কিন্তু এই শিক্ষানীতিতেই মাদরাসার ছাত্রদের ইঞ্জিনিয়ার ও ডাক্তার হওয়ার সুযোগ করে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা বিভাগের ডিন অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান, আওয়ামী লীগ নেতা ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, এস এম কামাল হোসেন, ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের সভাপতি এফ এম শরিফুল ইসলাম প্রমুখ।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই