মেইন ম্যেনু

ধূমপায়ী বাবা-মায়ের কারনে শিশু স্থূল হয়

ধূমপানকারী যে শুধু নিজের ক্ষতিকরেই ক্ষান্ত হন তা না। আসপাসের সবাইকে তার উপকারিতা বিলিয়ে বেড়ান! ধূমপানকারীর আশপাশে থাকলে তার ধোঁয়া বা গন্ধে শিশুরাও আক্রান্ত হয়। আর এভাবে পরোক্ষ ধূমপান যে শিশুর স্বাস্থ্যের জন্য মোটেই ভালো নয়, এটি অনেক আগেই জানা গেছে। সম্প্রতি এক গবেষণায় জানা গেছে আরো গুরুত্বপূর্ণ তথ্য।

গবেষণায় জানা গেছে, পরোক্ষ ধূমপানে শিশুর স্বাস্থ্যের মারাত্মক ক্ষতি ছাড়াও আরেকটি বড় ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে। আর এ ক্ষতিটি হচ্ছে স্থূলতা বা অতিরিক্ত মোটা হয়ে যাওয়ার সমস্যা।

গবেষকরা জানিয়েছেন, যেসব শিশুর বাবা বা মায়েরা ধূমপান করেন তাদের বডিম্যাস ইনডেস্কে (বিএমআই) কিছুটা অসামঞ্জস্য দেখা যায়।

গবেষকদলের প্রধান লিন্ডা পাগানি। তিনি কানাডার ইউনিভার্সিটি অব মন্ট্রিলের প্রফেসর। প্রফেসর লিন্ডা পাগানি বলেন, ‘১০ বছর বয়সে যেসব শিশু ধূমপায়ীর পাশে মাঝামাঝি পর্যায়ে বা সব সময় থাকে তাদের সমবয়সীদের তুলনায় কোমরের মাপ এক ইঞ্চির তিন-পঞ্চমাংশ চওড়া হয়।’

এ গবেষণাটি করা হয়েছে ২,০৫৫ পরিবারের সদস্যদের মাঝে। গবেষণার জন্য তাদের ধূমপানের মাত্রা, আচরণ ও বিভিন্ন শারীরিক মাত্রা পর্যবেক্ষণ করা হয়।

গবেষণার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে নিকোটিন অ্যান্ড টোব্যাকো রিসার্চ জার্নালে।






মন্তব্য চালু নেই