মেইন ম্যেনু

নওগাঁর বদলগাছীতে কোলা-দ্বীপগঞ্জ সড়কের বেহাল অবস্থা

কাজী আনিছুর রহমান, রাণীনগর (নওগাঁ) : নওগাঁর বদলগাছীতে কোলা-দ্বীপগঞ্জ সড়কের বেহাল অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। সরজমিনে ঐ এলাকা ঘুরে দেখা যায় উপজেলার বিলাশবাড়ী ইউপি ও কোলা ইউপির মধ্যকার ৩ কি.মি. সংযোগ সড়ক কোলা-দ্বীপগঞ্জ সড়কের বেহাল অবস্থা ও যান চালাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। সড়কে অসংখ্য স্থান এখন ক্ষতবিক্ষত ভাঙ্গাচুরা খনাখন্দে ভরা। দীর্ঘদিন ধরে এ রাস্তাটির সংস্কার না হওয়ায় রাস্তাটির এমন করুন দশা হয়েছে। যান চলাচলের অনুপযোগী এ রাস্তাটি দিয়ে চলাচল করতে গিয়ে স্থানীয় বাসিন্দাদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

অথচ রাস্তাটি দিয়ে উপজেলার পাহাড়পুর, মিঠাপুর, আধাইপুর ,কোলা ও বিলাশবাড়ী ইউনিয়নের হাজার হাজার মানুষ প্রতিদিন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নিজেদের প্রয়োজনের তাগিদে নওগাঁ জেলা শহরে চলাচল করে। সরজমিনে ঐ এলাকা ঘুরে দেখা যায় উপজেলার বিলাশবাড়ী ইউপি ও কোলা ইউপির মধ্যকার ৩ কি.মি. সংযোগ সড়ক এতটায় খারাপ যা দিয়ে যান চালাচল অনুপযোগী।

সড়কে অসংখ্য স্থান এখন ক্ষতবিক্ষত ভাঙ্গাচুরা খনাখন্দে ভরা। দীর্ঘদিন ধরে এ রাস্তাটির সংস্কার না হওয়ায় রাস্তাটির এমন করুন দশা হয়েছে। যান চলাচলের অনুপযোগী এ রাস্তাটি দিয়ে চলাচল করতে গিয়ে স্থানীয় বাসিন্দাদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এ অবস্থায় রাস্তাটির দ্রুত সংস্কারের দাবি জানিয়েছেন এলাকার সচেতন মহলের ব্যক্তিরা।

কোলা বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ রুঞ্জু হোসেন বলেন কোলা হইতে দ্বীপগঞ্জ পর্যন্ত এ পাকা রাস্তাটির অধিকাংশ স্থানে পিচ ঢালাই উঠে গিয়ে অসংখ্য গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। যান চলাচলের অনুপযোগী রাস্তাটি দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে যানবাহন চলাচল করছে। এমনকি এ রাস্তাটি ব্যাবহার করে অনেক গর্ভবতী মেয়েদের বাচ্চা প্রসব সহ বিভিন্ন চিকিৎসার জন্য জেলা শহর নওগাঁয় নিয়ে যাওয়া হয় যা অত্যান্ত ঝুকির্পূণ। সেকারনে রাস্তাটি দ্রুত সংস্কার করা প্রয়োজন।

সিএনজি চালক খোরশেদ আলম বলেন যে আমি প্রতিদিন কোলা হইতে দ্বীপগঞ্জ হয়ে নওগাঁ সদরে ভাঙ্গা এ রাস্তা দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অসংখ্য যাত্রী নিয়ে চলাচল করি। চলাচলে অনুপযোগী এ রাস্তাটিতে প্রায় দুর্ঘটনা ঘটে। এমনকি আমাদের গাড়ির বিভিন্ন ধরনের যন্ত্রাংশের সমস্যা সৃষ্টি হয়।

এ ব্যাপারে বিলাশবাড়ী ইউপির নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান মোঃ সাইদুর রহমান কেটু‘র কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমি সবে মাত্র চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছি এখনো পর্যন্ত দায়িত্বভার বুঝে পাইনি। আমি দায়িত্বভার বুঝে পাওয়ার পর অবশ্যই এ এলাকার মানুষের আশা আকাঙ্খার এ রাস্তাটি স্থানীয় এমপি মহোদয়ের সহযোগিতায় সংস্কার করে যানবাহন চলাচলের উপযোগী করে গড়ে তোলার চেষ্টা করব।
এ বিষয়ে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল এর বদলগাছী উপজেলা প্রকৌশলী মুনিরুজ্জামানের সঙ্গে কথা বললে তিনি জানান, ১৬/১৭ অর্থ বছরে রাস্তাটি সংস্কারের প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহন করা হয়েছে। আশা করি স্বল্প সময়ে মধ্যে রাস্তাটির সংস্কার কাজ শুরু করতে পারব।






মন্তব্য চালু নেই