মেইন ম্যেনু

নকল সরবরাহে বাধা : যুবলীগ-পুলিশ সংঘর্ষে পরীক্ষার্থীসহ গুলিবিদ্ধ ২

নোয়াখালী জেলার কোম্পানীগঞ্জে এইচএসসি পরীক্ষায় নকল সরবরাহে বাধা দেয়াকে কেন্দ্র করে স্থানীয় যুবলীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে পরীক্ষার্থীসহ আনসার সদস্য গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।

বুধবার বিকেল পৌনে ৫টার দিকে বামনী মহাবিদ্যালয় কেন্দ্রে পদার্থ বিজ্ঞান পরীক্ষা চলাকালে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিকেলে উপজেলার বামনী মহাবিদ্যালয় কেন্দ্রে পদার্থ বিজ্ঞান পরীক্ষা চলছিল। এসময় রামপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন পরীক্ষা কেন্দ্রে নকল সরবরাহ করতে গেলে কর্তব্যরত পুলিশ তাকে বাধা দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে কেন্দ্রে কর্তব্যরত পুলিশ কনস্টেবল সাইফুলের কাছ থেকে অস্ত্র ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে যুবলীগ নেতা দেলোয়ার। এনিয়ে তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। পরে যুবলীগ নেতা দেলোয়ারের সহযোগিরা একত্রিত হয়ে পুলিশের ওপর হামলা চালায়। এসময় পুলিশ কয়েক রাউন্ড গুলি ছুড়ে এবং লাঠিচার্জ করলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। এসময় ওই কেন্দ্রের এইচএসসি পরীক্ষার্থী সোহেল হোসেন (১৮) ও স্থানীয় গ্রাম পুলিশ বাবুল চৌকিদার (৪০) গুলিবিদ্ধ হন। এছাড়া সংঘর্ষে কনস্টেবল জুয়েল, মাহমুদ, সাইফুল ও ৫ পুলিশ সদস্যসহ কমপক্ষে ১০জন আহত হয়। আহতদেরকে কোম্পানীগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

রামপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন জানান, তিনি তার ছোট বোনকে পরীক্ষা কেন্দ্র থেকে আনতে গেলে পুলিশ অহেতুক তার উপর গুলি ছুড়ে। পুলিশের গুলিতে অন্য একজন পরীক্ষার্থী গুলিবিদ্ধ হয়।

রামপুর ইউনিয়নে অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্পের সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) দীপক চাকমা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, যুবলীগ নেতা দেলোয়ার পুলিশের অস্ত্র ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে এবং পুলিশের ওপর হামলা চালায়। এসময় পুলিশ অস্ত্র এবং আত্মরক্ষার্থে ২রাউন্ড গুলি ছুড়ে ও লাঠিচার্জ করে।






মন্তব্য চালু নেই