মেইন ম্যেনু

নগরীতে টানা বর্ষনে জনজীবনে দুর্ভোগ : সৃষ্টি হয়েছে জলাবদ্ধতা

প্রবল বর্ষনে চট্টগ্রাম নগরীতে জনজীবনে দুর্ভোগ চরমে। মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে গত দুইদিনের টানা বৃষ্টিতে নগরীর বিভিন্ন জায়গায় পানি জমে যাওয়ায় দুর্ভোগ নেমে এসেছে জনজীবনে।

এ অস্বাভাবিক বৃষ্টিতে নগরীর অধিকাংশ নিচু এলাকা পানির নিচে তলিয়ে গেছে। একই সঙ্গে জোয়ারের পানি যুক্ত হয়ে এ দুর্ভোগ আরও বাড়িয়েছে।

এদিকে টানা বৃষ্টির কারণে সড়কে গণপরিবহন চলাচল কমে যাওয়ায় সৃষ্টি হয়েছে পরিবহন সংকট। শনিবার সকালে নগরীর বিভিন্ন স্থান ঘুরে দেখা গেছে অক্সিজেন, হামজারবাগ, মুরাদপুর, বহদ্দারহাট, কাতালগঞ্জ, নাসিরাবাদ, বায়োজিদ, চকবাজার, পাঁচলাইশ, ডিসি রোড, চান্দগাঁও, মোহরা, বাকলিয়া, চাক্তাই, কোরবানিগঞ্জ, মাস্টারপুল, বৌ বাজার, আগ্রাবাদ, ছোটপুল, বড়পুল, সিডিএ, হালিশহর, পাহাড়তলী, সরাইপাড়া, সাগরিকা, বন্দর,পতেঙ্গা, ইপিজেড,সিমেন্ট ক্রসিং,কাজীর গলি,আকমল আলী রোড,হাসপাতাল গেট,মাদ্রাজী শাহ পাড়া ,নয়াহাট,নিউ মুরিং,নুরগনি পাড়া,হিন্দু পাড়া,বেড়ী বাধ,পতেঙ্গা ভিআইপি রোড,লালদিয়ার চর,মাইজ পাড়া,সল্ট গোলা ক্রসিং,কলসি দীঘী রোড,বোরখান পাড়া,আনন্দপাড়া রোডসহ নগরীর নিচু এলাকায় পানি জমে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। পানি ঢুকে পড়েছে সরকারি-বেসরকারি অফিসেও। বাসা-বাড়িতেও কোমর সমান পানি। ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানে পানি ঢুকে পড়ায় বন্ধ রয়েছে বিকিকিনি।

নগরীর ইপিজেড এলাকার বাসিন্দা রফিকুল ইসলাম আওয়ার নিউজকে বলেন, বাসায় কোমর সমান পানি। ঘর থেকে বের হতে পারছিনা। বৃষ্টি আর সড়কে জমে থাকা পানির কারণে অফিসসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ পড়েছে দুর্ভোগে। বড়পুল এলাকার বাসিন্দা শাহেদুল ইসলাম সুমন নিরাপদ আওয়ার নিউজকে বলেন, বৃষ্টিতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা সড়কে দাঁড়িয়েও গাড়ি পাচ্ছি না।

গাড়ি পাওয়া গেলেও উচ্চ ভাড়া হাঁকছেন চালকরা। রিকশা ছাড়া অন্য কোন পরিবহনের দেখা মিলছে না। আবহাওয়া অধিদপ্তর সূত্র জানায়, মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে আগামী ২৪ ঘণ্টায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরণের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরণের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে।






মন্তব্য চালু নেই