মেইন ম্যেনু

নগ্ন ফোটোশ্যুট থেকে যৌনতা! সাক্ষাৎকারে একি বললেন এই অভিনেত্রী?

ড্রাগ মাফিয়া ভিকি গোস্বামীর সঙ্গে তাঁর নাম জড়িয়েছে। বলা হচ্ছে, ভিকি তাঁর স্বামী। সব প্রচারের জবাব দিলেন মমতা কুলকার্নি। কী বললেন তিনি?

ড্রাগ মাফিয়া ভিকি গোস্বামীর সঙ্গে তাঁর নাম জড়িয়েছে। আচমকা বহু দিন পরে ভেসে উঠেছে মমতা কুলকার্নি নামটি। গত শতকের ৯০-এর দশকে বলিউডের অন্যতম সেক্স সিম্বল মমতা সব অভিযোগ নিয়ে এত দিন নীরব ছিলেন। সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে মুখ খুলেছেন। এবং সেখানেই একের পর এক বিস্ফোরক দাবি করেছেন তিনি।

কী বলেছেন মমতা?
তাঁর দাবি, ভিকি গোস্বামী তাঁর স্বামী নন। ভিকি তাঁর পরিচিত। তবে তাঁদের মধ্যে যে ভাল সম্পর্ক ছিল, সে কথা স্বীকার করেছেন তিনি। মমতা কুলকার্নি বলেছেন, ‘‘আমার এবং ভিকির মধ্যে কোনও শারীরিক সম্পর্কও ছিল না। আমরা একে অন্যের পরিচিত। ড্রাগ পাচার এবং ব্যবসার সঙ্গে আমার কোনও যোগাযোগ নেই।’’ এর পরেই সাহসী মন্তব্যটি করেছেন মমতা। বলেছেন, ‘‘যৌনতা আমাকে আকর্ষণ করে না। ড্রাগ কীভাবে করবে?’’

সাক্ষাৎকারে নানা প্রসঙ্গই তুলে ধরেছেন মমতা। দাবি করেছেন, তিনি কখনওই সিনেমায় আসতে চাননি। কিন্তু তাঁর মায়ের ইচ্ছাপূরণ করতে তাঁকে অভিনয়ে আসতে হয়েছিল। তার পরে একসময়ে নিজের ইচ্ছেয় সরে যান গ্ল্যামার জগৎ থেকে। মমতার দাবি, রাস্তায় তাঁকে দেখে অনেকেই চিনতে পারতেন। কিন্তু তিনি স্রেফ নিজের পরিচয় এড়িয়ে যেতেন।

তিনি বলেছেন, ‘‘বলিউডে আসাটা আমার জীবনের সবথেকে বড় ভুল। আমি আমার মায়ের ইচ্ছের শিকার হয়ে এখানে এসেছিলাম। গত ১২ বছর ধরে সেই পাপ খণ্ডনের চেষ্টা করছি।’’ এই প্রসঙ্গেই যৌনতার কথা টেনে এনেছেন মমতা। বলেছেন, ‘‘কোনও ব্যক্তি যখন ১২ বছর ধরে যপতপ নিয়ে থাকবেন, তখন কেউ তাঁকে একান্তে ছুঁলেও তিনি সেটা পছন্দ করবেন না। তিনি তখন অন্তর থেকে পবিত্র। তিনি তখন চাইবেন না, কোনও পুরুষ তাঁকে স্পর্শ করুক। যৌনতা বলে জীবনে কিছু থাকবে না।’’ মমতা কুলকার্নি বলেছেন, ‘‘কোনও পুরুষ যদি আমার সামনে নগ্ন হয়ে দাঁড়ান, তা হলেও আমার উপরে কোনও প্রভাব পড়বে না।’’

এই প্রসঙ্গেই মমতা জানিয়েছেন গত শতকের ৯০-এর দশকে সেই বিতর্কিত ফোটোশ্যুটের কথা। তিনি বলেছেন, ‘‘আমার তখন খুব অল্পবয়স ছিল। আমি খুব সাদাসিধে ছিলাম। আমাকে ডেমি মুরের একটি নগ্ন ফোটোশ্যুট দেখিয়ে বলা হয়েছিল, এই ফোটোশ্যুটে ডেমি মুরের জায়গায় আমাকে নেওয়া হবে।’’






মন্তব্য চালু নেই