মেইন ম্যেনু

নজরকাড়া চুলের জন্য ব্যবহার করুন জাদুকরী এই মাস্ক

একেক জনের চুলের ধরণ একেক রকম। কারো চুল শুষ্ক আর কারো বা তৈলাক্ত, কারো চুল পাতলা আর কারো চুল ঘন, কারো চুল স্ট্রেইট আর কারো চুল কার্লি। চুলের ধরণের বিভিন্নতা সত্ত্বেও চুলের বিভিন্ন ধরণের সমস্যা যদি একটি হেয়ার মাস্ক ব্যবহার করেই ঠিক করা যায় তাহলে কেমন হয়? খুবই ভালো হয় তাই না? হ্যাঁ এই রকম একটি অলৌকিক হেয়ার মাস্কের কথাই আজ জেনে নিব আমরা।

এই হেয়ার মাস্কের উপকারিতা হচ্ছে –

– চুল পড়া বন্ধ করে

– খুশকি দূর করে

– চুলের বৃদ্ধিতে সাহায্য করে

– চুলকে আর্দ্রতা দেয় এবং চুলকে নরম, মসৃণ ও উজ্জ্বল করে

– চুলকে শক্তিশালী করে এবং চুলের ভলিউম বৃদ্ধি করে

– কোঁকড়া ও অবাধ্য চুলকে বশে আনতে সাহায্য করে

– চুলভাঙ্গাওআগাফাটারোধকরে

– চুলের জট দূর করে

অলৌকিক হেয়ার মাস্কের উপাদান হচ্ছে মাত্র দুটি। আর তা হল :

– দইও মেথি বীজ

মেথি বীজ

আমাদের এই উপমহাদেশের প্রতিটি ঘরেই মেথি বীজ পাওয়া যায়। এটি শুধু একটি সুগন্ধি মসলাই নয়। এর চমৎকার ঔষধি গুনাগুণ ও সৌন্দর্য উপকারিতাও আছে। চুল পড়ে যাওয়া ও চুল পাতলা হয়ে যাওয়ার প্রাচীন একটি প্রতিকার হচ্ছে মেথি বীজের ব্যবহার।

এটি মাথার তালুর রক্ত প্রবাহকে উদ্দীপিত করে। হেয়ার ফলিকলকে পুষ্টি প্রদান করে এবং দ্রুত নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে। এতে উচ্চ মাত্রার মিউসিলেজ উপাদান থাকে যা কন্ডিশনারের মত কাজ করে এবং চুলের জটকে সহজ করে।

আপনার চুল যদি শুষ্ক, মোটা ও কোঁকড়া হয় তাহলে মেথির সাহায্য নিতে পারেন। নিয়মিত এই হার্বটি হেয়ার মাস্কে ব্যবহার করলে আপনার চুল নরম, মসৃণ ও দীপ্তিময় হবে এবং খুব সহজেই নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন আপনার চুল।

এছাড়াও মেথিতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও অ্যান্টিইনফ্লামেটরি উপাদান থাকে যা আপনাকে খুশকি মুক্ত হতে এবং মাথার তালুর যন্ত্রণা ও ব্রণ মুক্ত হতে সাহায্য করবে।

দই

দই একটি পুষ্টিকর খাদ্য যা চুলের জন্য ও চমৎকার কাজ করে। দই যেহেতু প্রোটিনে ভরপুর থাকে তাই এটি চুলকে শক্তিশালী হতে সাহায্য করে, চুলের আগা ফাটা ও চুল ভেঙ্গে যাওয়া রোধ করে। এর পাশাপাশি দই চুলকে আর্দ্রতা দেয়, কন্ডিশনারের মত কাজ করে এবং চুলের আয়তন বৃদ্ধিতে ও চুলকে দীপ্তিময় করতে সাহায্য করে।

যদি খুশকিকে কোনভাবেই দূর করতে না পারেন তাহলে দই ও মেথির মিশ্রণ চমৎকারভাবে কাজ করবে আপনাকে এই সমস্যা থেকে উদ্ধার করতে। দই এ ভালো ব্যাকটেরিয়া থাকে যা খুশকি সৃষ্টিকারী ইস্টের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে।

এছাড়াও দইয়ে যে ল্যাক্টিক এসিড থাকে তা এক্সফলিয়েট করতে চমৎকার ভাবে কাজ করে। এজন্যই মাথার তালুর মরা চামড়া ও আইশ দূর করে মাথার তালুকে পরিষ্কার ও সুস্থ রাখতে সাহায্য করে দই।

যেভাবে তৈরি করবেন এই অলৌকিক মাস্ক

– ১ টেবিল চামচ মেথি বীজের গুঁড়া

– ৫-৬ টেবিল চামচ দই (অবশ্যই টক দই)

– ১-২ টেবিল চামচ অলিভ ওয়েল

– ১/৪ কাপ পানি (মিশ্রণটিকে পাতলা করার জন্য যার যেমন প্রয়োজন)

মেথি গুঁড়া, দই ও অলিভ ওয়েল একসাথে মিশিয়ে একটি ঢাকনা যুক্ত পাত্রে রেখে ঢাকনা লাগিয়ে ২-৩ ঘন্টা রেখে দিন। এর ফলে মেথি গুঁড়া ফুলে উঠবে এবং পুরো মিশ্রণটি ঘন ও কাঁদার মত দেখাবে। আপনার কাছে যদি ঘুব ঘন মনে হয় তাহলে এতে কয়েক টেবিল চামচ পানি মেশাতে পারেন ক্রিমের মত করার জন্য। তৈলাক্ত চুলের ক্ষেত্রে অলিভ ওয়েল না মিশিয়ে দই ও মেথি গুঁড়া দিয়ে তৈরি করুন এই হেয়ার মাস্ক।

যেভাবে ব্যবহার করবেন

এই মাস্কটি আপনার মাথার তালুতে ও চুলে লাগান। তারপর মাথায় একটি শাওয়ার ক্যাপ পড়ে নিন বা তোয়ালে বা মসলিন কাপড় দিয়ে পেঁচিয়ে নিন। আপনি চাইলে মাথা না ঢেকেও রাখতে পারেন যদি মিশ্রণটি ফোঁটায় ফোঁটায় না পড়ে। এভাবে ২০-৩০ মিনিট থাকার পর প্রাকৃতিক শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ১ দিন এই মাস্কটি ব্যবহার করুন।






মন্তব্য চালু নেই