মেইন ম্যেনু

নতুন পে-স্কেল বাস্তবায়ন শিগগিরই : প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের জন্য ঘোষিত নতুন পে-স্কেল শিগগিরই বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছে সরকার। তিনি বলেন, ‘চলতি মাস থেকেই আরেকটি নতুন পে স্কেল চালু হওয়ার কথা ছিল। আল্লাহর রহমতে, সব কিছু প্রস্তুত। আমরা তা বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছি।’ আজ মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

জ্যেষ্ঠ সরকারি কর্মকর্তাদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘সরকারের আর্থিক নীতি ও লক্ষ্য বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে আপনাদের আরো সক্রিয় হওয়ার আহ্বান জানাই। ’

বার্তাসংস্থা বাসস জানিয়েছে, অনুষ্ঠানে সূচনা বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব মো. আবুল কালাম আজাদ। এতে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টারা এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অধীন সংস্থাগুলোর প্রধান ও জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি জানি যে দায়িত্ব পালনকালে সরকারি কর্মকর্তাদের সুবিধা ও অসুবিধা উভয়ই মোকাবিলা করতে হয়। তবে আপনাদের প্রথমে দেশের কথা বিশেষ করে দরিদ্র ও শ্রমিক শ্রেণির বিষয় চিন্তা করতে হবে। ’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমরা কীভাবে টিকে থাকব- এটা বড় বিষয় নয়। আমাদের কম সুবিধাভোগী, দরিদ্র ও অতিদরিদ্রদের নিয়ে ভাবতে হবে। তাঁদের ভাগ্যের পরিবর্তন করাই হবে আমাদের দায়িত্ব।’ তিনি আরো বলেন, ‘আমরা কী পেলাম বা পেলাম না, এটা বড় করে দেখলে চলবে না। আমাদের নিচের দিকে তাকিয়ে ভাবতে হবে। আমাদের প্রধান বিবেচনা হবে যে, দেশ ও জনগণের জন্য আমরা কতটা সেবা দিতে পারলাম। ’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সাধারণ মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য গঠিত আওয়ামী লীগ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছে। এ জন্য আওয়ামী লীগ যখনই ক্ষমতায় আসে জনগণের ভাগ্যের পরিবর্তন ও দেশের উন্নয়নের মাধ্যমে স্বাধীনতার সুফল সবার মাঝে পৌঁছে দিতে কাজ করে।’

পদ্মা সেতুর উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এ মেগাপ্রকল্প আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জ ছিল। আমরা ঘোষণা দিয়েছিলাম যে এটি নিজস্ব অর্থায়নে নির্মাণ করব। আমরা আমাদের এ প্রতিশ্রুতি রক্ষা করে পদ্মা সেতু নির্মাণের কাজ শুরু করেছি।’

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ‘আমরা যেমন পদ্মা সেতুর মতো একটি বড় প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছি, সরকারি কর্মকর্তাদের মাঝেও এ ধরনের আস্থা থাকতে হবে।’






মন্তব্য চালু নেই