মেইন ম্যেনু

নতুন প্রজাতির বানর

নতুন প্রজাতির বানরের খোঁজ মিলেছে ভারতের অরুণাচল প্রদেশে। প্রদেশটির আনজাও জেলার প্রাণি বিশেষজ্ঞ উদয়ন বরঠাকুর, আরণ্যকের প্রাইমেট গবেষণা ও সংরক্ষণ বিভাগের প্রধান দিলীপ ছেত্রী ও তিনসুকিয়া কলেজের ভূগোলের অধ্যাপক রঞ্জনকুমার দাস ওই নতুন প্রজাতির বানরটির সন্ধান পান।

উদয়ন, দিলীপ ও রঞ্জনবাবু গত বছর মার্চে পাখির ছবি তুলতে গিয়ে অরুণাচলের পূর্ব সীমানার জঙ্গলে ঘুরছিলেন। তখন তারা ওই বানরটি দেখতে পান। সব রকম পরীক্ষার পরে নিশ্চিত হওয়া গেছে, আনজাওয়ে পাওয়া বানরটি রেস্যাস ম্যাকাক, অরুণাচল ম্যাকাক, আসাম ম্যাকাক ও তিব্বতি ম্যাকাকের চেয়ে ভিন্ন প্রজাতির।

বানরটির মুখ ঘিরে বড় লোমের বিন্যাস, গলা থেকে পেটের লোমশ অংশ, কেশহীন ছোট লেজ, কালচে লাল মুখ, ঘাড়ে লম্বা ও ঘন চুল, থুতনির চারপাশে সাদাটে ধূসর রঙ। আর এসব বৈশিষ্টই এদের অন্য প্রজাতি থেকে স্বতন্ত্র করেছে।

প্রাণি বিশেষজ্ঞ উদয়ন বরঠাকুর জানান, ২০১৩-১৪ সালে দক্ষিণ-পূর্ব তিব্বতের মোদগ এলাকায় ছয় মাসের অভিযান চালানোর পরে চীনা জীববিজ্ঞানীদের একটি দল একই প্রজাতির বানরের সন্ধান পেয়েছিলেন। ওই অভিযানের নেতৃত্বে ছিলেন চীনের দালি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানী পেং ফেই ফ্যান, চেং লি ও চাও ঝাও।

২০১৫ সালে নতুন প্রজাতির অস্তিত্ব নিয়ে নিশ্চিত হওয়ার পর তারা বানরটির নাম দিয়েছিলেন ‘হোয়াইট চিকড ম্যাকাক’। এতদিন মনে করা হতো শুধু চীনের মোদগ এলাকাতেই এই বানরদের দেখা মেলে। কিন্তু অরুণাচলপ্রদেশের আনজাও জেলার জঙ্গলে উদয়নবাবু, রঞ্জনবাবু ও দিলীপবাবুর তোলা ছবি থেকে প্রমাণিত হলো, তিব্বতের মোদগ এলাকার পাশাপাশি ভারতেও রয়েছে সাদা গালওয়ালা ম্যাকাকের দল।






মন্তব্য চালু নেই