মেইন ম্যেনু

নদীতে জাল দিয়ে মাছ নয়, টাকা আর টাকা! (ছবি সহ)

অস্ট্রিয়ার ভিয়েনায় দানিউব নদীতে এক ঝাক মাছের মতো ভাসছিলো ইউরোর চকচকে বেশকিছু ব্যাঙ্ক নোট।

অল্প বয়সী এক ছেলে তখন ওই নোটগুলো দেখতে পেয়ে জাল নিয়ে নদীতে নেমে পড়ে এবং সাতার কেটে সেগুলো তীরে নিয়ে আসে।

একশো বা দুশো নয়, গুণে দেখা গেলো ওই ব্যাঙ্ক নোটের মূল্য এক লাখ ইউরোরও বেশি।

হায়রে কপাল, ছেলেটির জন্যে তখনও শিকে ছেড়েনি।

স্থানীয় একটি পত্রিকা বলছে, নদীর পার দিয়ে হেঁটে যাওয়া কয়েকজন লোক প্রথমে মনে করেছিলো ছেলেটি নদীতে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করছে।

তখন তারা পুলিশকে খবর দেয়।

151207131006_austria_cash_640x360_bbc_nocredit

বিধিবাম!

ছেলেটি যখন ব্যাঙ্ক নোটগুলো বগলদাবা করে তীরে এসে পৌঁছায় ততোক্ষণে সেখানে এসে হাজির হয় পুলিশ।

তারপর সেই টাকা চলে যায় পুলিশের হাতে।

সবগুলোই ৫০০ আর ১০০ টাকার নোট, একেবারেই আনকোরা।

কিন্তু টাকার ব্যাপারে ছেলেটি দমে যায়নি এখনও।

পুলিশের কাছে সে ওই টাকার ভাগ চাইছে। কারণ সে দাবি করছে যে নদীতে ঝাপ দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সে এই টাকা উদ্ধার করেছে।

অস্ট্রিয়ায় সাধারণত কেউ যদি অর্থ খুঁজে পান তারপর সেটা পুলিশের কাছে জমা দেন তাহলে তাকে ওই অর্থের ৫ থেকে ১০ ভাগ দেওয়া হয়ে থাকে।

151207131126_austria_cash_640x360_bbc_nocredit

পুলিশ বলছে, এক বছরের মধ্যে যদি টাকার মালিককে খুঁজে না পাওয়া যায় তাহলে শেষ পর্যন্ত পুরোটা টাকাই এই ছেলেটিকে দিয়ে দেওয়া হবে।

পুলিশ এখন এই রহস্য খুঁজে বের করার চেষ্টা করছে যে এত্তো ইউরো নদীতে আসলো কিভাবে?

প্রথমে তারা ভেবেছিলেন জাল নোট। কিন্তু পরে তারা পরীক্ষা করে দেখেছেন নোটগুলো আসল।

পুলিশের একজন মুখপাত্র বলছেন, কোনো অপরাধের সাথে তারা এখনও এই টাকার সংযোগ খুঁজে পাচ্ছেন না।

ইউরোর নোটগুলো এখন শুকানো হচ্ছে।

151207131145_austria_cash_640x360_bbc_nocredit

সূত্র: বিবিসি বাংলা






মন্তব্য চালু নেই