মেইন ম্যেনু

নাইজেরিয়ায় মসজিদে বোমা হামলায় নিহত ৪২

নাইজেরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় ইয়োলা এবং মাইদুগুরি শহরের মসজিদে দুটি পৃথক বোমা হামলার ঘটনায় কমপক্ষে ৪২ জন নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে সংবাদ সংস্থা বিবিসি। ওই হামলায় আহত হয়েছে আরো শতাধিক মানুষ।

ইয়োলা শহরের সদ্য নির্মিত একটি নতুন মসজিদকে লক্ষ্য করে বোমা হামলা চালানো হয়েছিল। এতে কমপক্ষে ২৭ জন নিহত হয়েছে। এছাড়া মাইদুগুরিতে একটি আত্মঘাতী হামলায় ১৫ জন নিহত হয়েছে।

ওই দুটি পৃথক হামলা সম্পর্কে এখনও কিছু জানা যায়নি। কে বা কারা ওই হামলা চালিয়েছে সে সম্পর্কে স্থানীয় পুলিশ এখনও কোনো তথ্য জানাতে পারেনি। তবে দেশটিতে বোকো হারামই এ ধরনের হামলা চালিয়ে থাকে।

দেশটিতে বোকো হারাম জঙ্গি গোষ্ঠী প্রায়ই খ্রিষ্টান এবং মুসলমানদের ওপর এ ধরনের হামলা চালিয়ে থাকে। তাদের আদর্শ অনুযায়ী না চললেই এ ধরনের হামলার শিকার হতে হয়।

শুক্রবার সকালে ফজরের নামাজ পরার সময় মাইদুগুরিতে প্রথম হামলাটি চালানো হয়েছিল। এক প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছে, এক আত্মঘাতী ওই হামলা চালিয়েছিল।

শুক্রবার আরো পরের দিকে জুম্মার নামায আদায়কারীদের ওপর দ্বিতীয় হামলাটি চালানো হয়েছিল। এটি অনেক বড় হামলা ছিল বলে জানিয়েছে প্রত্যক্ষদর্শীরা। ইয়োলা শহরের জিমেতা এলাকায় সদ্য নির্মিত নতুন মসজিদে ওই হামলা চালানো হয়েছিল।

এ বছর হাজার হাজার মানুষ বোকো হারামের বিভিন্ন হামলায় নিহত হয়েছে। এছাড়া বাস্তুহারা হয়েছে আরো কয়েক লাখ মানুষ। এর আগে গত সপ্তাহে দেশটির উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় মাইদুগুরি শহরের কাছে অবস্থিত একটি মসজিদে দুটি আত্মঘাতী হামলায় কমপক্ষে ৩০ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো বহু মানুষ। মাগরিবের নামাজের সময় নামাজরত মুসল্লিদের ওপর ওই হামলা চালানো হয়েছিল।

এছাড়া দেশটিতে এবছরের জুলাইয়ে পৃথক তিনটি আত্মঘাতী হামলা চালানো হয়েছিল। একটি হামলা চালানো হয়েছিল উত্তরাঞ্চলীয় গোম্বী শহরের একটি মসজিদকে লক্ষ্য করে। ওই হামলায় কমপক্ষে ৩৭ জন প্রাণ হারিয়েছিল।

এছাড়া ২০১৪ সালের মে মাসে কানো শহরের প্রধান মসজিদে হামলার ঘটনায় প্রায় ২ শতাধিক মানুষ প্রাণ হারিয়েছিল। শুক্রবার জুম্মার নামায আদায়কারী মুসলিমদের ওপর ওই নৃশংস হামলা চালানো হয়েছিল।

নাইজেরিয়া এবং চাদে প্রায়ই মসজিদে নামাযরত মুসল্লিদের ওপরএ ধরনের হামলা চালিয়ে থাকে বোকো হারাম জঙ্গি গোষ্ঠী।






মন্তব্য চালু নেই