মেইন ম্যেনু

নাটকীয়তা শেষে ভারত যাচ্ছে পাকিস্তান

ভারতে চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে অংশ নেওয়ার ক্ষেত্রে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে টম এন্ড জেরি খেলা চলছিল।

তবে সেই খেলা সমাপ্ত হয়েছে। সব ধরণের নাটকীয়তা শেষে ভারতে যেতে রাজি হয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট দল। শুক্রবার দুটি দেশের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের বৈঠক হয়। সেখানে পাকিস্তান দলের সব ধরণের নিরাপত্তা দিতে রাজি হয় ভারত সরকার। পাশাপাশি পশ্চিমবঙ্গ সরকারও সব ধরণের নিরাপত্তা দেওয়ার বিষয়ে লিখিতপত্র দেয়।

বিষয়গুলো আইসিসির মাধ্যমে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড ও পাকিস্তান হাইকমিশনের মাধ্যমে ইসলামাবাদে জানিয়ে দেওয়া হয়। এরপর শুক্রবার বিকেলে পাকিস্তান সরকার ভারতে অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলতে যেতে তাদের পুরুষ ও মহিলা দলকে অনুমতি দেয়। অনুমতি পাওয়ায় যেকোনো মুহূর্তে ভারতগামী বিমানে চেপে বসতে পারে পাকিস্তান ক্রিকেট দল।

গেল কয়েকদিন ধরে পাকিস্তান তাদের ক্রিকেট দলের সব ধরণের নিরাপত্তা দেওয়ার ব্যাপারে লিখিত নিশ্চয়তার জন্য ভারত সরকারকে পিড়াপিড়ি করছিল।

কিন্তু ভারতের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কিরেন রিজিজু এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হচ্ছিলেন না। তিনি জানিয়েছিলেন, কোন দেশ বা দল যদি বিশেষ নিরাপত্তা পাওয়ার যোগ্য হয় তাহলে ভারত সরকার তাদের সেটা দিবে এবং খুশি মনেই দিবে।

এদিকে পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী চৌধুরী নিসার খান বলে আসছিলেন যতক্ষণ না নয়াদিল্লি থেকে আমরা ক্রিকেট দলের জন্য সব ধরণের নিরাপত্তার লিখিত নিশ্চয়তাপত্র পাই, ততক্ষণ পাকিস্তান দলের ভারতে যাওয়ার প্রশ্নই ওঠে না।

আজ শুক্রবার ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং জানান ভারতে নিরাপত্তার বিষয় নিয়ে কারো সন্দেহ প্রকাশ করার অবকাশ নেই। পাশাপাশি আজ দুপুরের পর পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী ও কলকাতা পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার পাকিস্তান দলের নিরাপত্তার বিষয়ে একটি লিখিত নিশ্চয়তাপত্র বেঙ্গল ক্রিকেট সংস্থার সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলির কাছে জমা দেন। তিনি লিখিত পত্রটি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) কাছে হস্তান্তর করেন। আর আইসিসি পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডকে জানিয়ে দেয় যে পশ্চিমবঙ্গ সরকার পাকিস্তান ক্রিকেট দলকে সব ধরণের নিরাপত্তা দেওয়ার ব্যাপারে লিখিত দিয়েছে।

এরপর পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের প্রেসিডেন্ট শাহরিয়ার খান পিসিবির নির্বাহী কমিটির চেয়ারম্যান নাজাম শেঠির সঙ্গে বৈঠকে বসেন। সেখানে তিনি পশ্চিমবঙ্গ সরকারের দেওয়া নিরাপত্তা নিশ্চয়তার বিষয়টি উল্লেখ করেন।

একই সময়ে পাকিস্তান হাই কমিশনার আব্দুল বাসিত ভারতের স্বরাষ্ট্র সচিব রাজীব মেহরিশির সঙ্গে সাক্ষাত করেন। সাক্ষাত শেষে তিনি সংবাদিকদের বলেন, ‘আমি আমার সুপারিশপত্র ইসলামাবাদে পাঠিয়ে দিব। তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তটি আমাদের সরকারই নিবে।’

এরপর বিকেলে পাকিস্তান সরকার ক্রিকেট দলকে ভারতে খেলতে যেতে অনুমতি দেয়।

তবে শনিবার পশ্চিমবঙ্গের ক্রিকেট দলের সঙ্গে পাকিস্তান ক্রিকেট দলের যে প্রস্তুতি ম্যাচটি খেলার কথা ছিল। আপাতত সেটি বাতিল করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই