মেইন ম্যেনু

“নাভারন-মুন্সিগঞ্জ রেল লাইনের সমীক্ষা শেষ”

সাড়ে ২৭ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে ঢাকা থেকে পদ্মা সেতু হয়ে যশোর পর্যন্ত রেল সংযোগ (প্যাকেজ নং ডব্লিউডি-১) স্থাপনে চীনা প্রতিষ্ঠান ‘চায়না রেলওয়ে গ্রুপ লিমিটেড’ (সিআরইসি)-কে নিয়োগ দিয়েছে সরকার। বুধবার সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত ‘সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি’র বৈঠকে এটি অনুমোদন দেয়া হয়েছে। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের অনুপস্থিতিতে বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী।

এদিকে গত বুধবার জাতীয় সংসদে প্রধানমন্ত্রীর জন্য নিয়মিত প্রশ্নোত্তর পর্বে তিনি সংসদকে জানান, যশোর জেলার নাভারন হতে শার্শা হয়ে সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর উপজেলার মুন্সীগঞ্জ পর্যন্ত রেললাইন নির্মাণের সমীক্ষার কাজ ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে। বাকী প্রক্রিয়াগুলো শেষ করার জন্য সরকার দ্রুত কাজ করে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশ রেলওয়েতে ৮৬ হাজার ৩০ কোটি ৭৩ লাখ টাকা ব্যয়ে মোট ৪৩টি প্রকল্প চলমান রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী বুধবার সংসদে তাঁর জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে জাতীয় পার্টির সদস্য ফখরুল ইমামের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ৪৩টি প্রকল্পের অনুকূলে ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে ৯ হাজার ১১৪ কোটি ৯৬ লাখ টাকা বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে। প্রকল্পগুলোর কাজ দ্রুত বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নের মাধ্যমে রেলযোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নসহ দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। তিনি বলেন, কালুখালি-ভাটিয়াপাড়া সেকশনে পুনর্বাসন এবং কাশিয়ানী-গোপালগঞ্জ-টুঙ্গিপাড়া নতুন রেলপথ নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় ইতোমধ্যে কালুখালি-ভাটিয়াপাড়া সেকশন পুনর্বাসন কাজ শেষ হয়েছে। কাশিয়ানি হতে গোপালগঞ্জ পর্যন্ত নতুন রেললাইন নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে। এছাড়া গোপালগঞ্জ থেকে গোবরা পর্যন্ত নতুন রেলপথ নির্মাণের কাজও ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই