মেইন ম্যেনু

নারীদের মন্দিরে ঢুকতে বাধা দিলে ছয় মাসের জেল

অবশেষে ভারতের মহারাষ্ট্রের এক মন্দিরের একেবারে সবচেয়ে পবিত্র এবং গোপন প্রকোষ্ঠে নারী পুজারিদের ঢুকতে দিতে রাজী হয়েছে মন্দির কর্তৃপক্ষ।

রাষ্ট্রের ‘শনি শিংনাপুর’ মন্দিরে প্রবেশাধিকারের দাবিতে নারী অধিকার কর্মীরা সেখানে অনেক দিন ধরে আন্দোলন করে যাচ্ছেন। কয়েক শতাব্দীর পুরনো এই মন্দিরটিতে এ পর্যন্ত কেবল পুরুষদেরই প্রবেশাধিকার ছিল। কিন্তু গত সপ্তাহে মুম্বাই হাইকোর্ট এই মন্দিরে মহিলাদেরও প্রবেশাধিকার আছে বলে রায় দেয়।

ভারতের এনডিটিভি জানিয়েছে, মন্দির কর্তৃপক্ষ এখন এই মন্দিরে মহিলাদের ঢুকতে উৎসাহিত করা বা বাধা দেয়া, কোনটাই করবে না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর মানে হচ্ছে মন্দিরে ঢুকতে মহিলাদের আর কোনো বাধা নেই। ভারতের আরো কিছু মন্দিরে এখনো মহিলাদের ঢুকতে না দেয়ার পুরনো রীতি বহাল আছে।

মুম্বাই হাইকোর্ট বলেছেন, নারীদেরও মন্দিরে যাওয়ার অধিকার আছে এবং তাদের মন্দিরে ঢুকতে বাধা দিলে ছয় মাস পর্যন্ত সাজা হতে পারে।

উল্লেখ্য, গত বছর একজন নারী শনি শিংনাপুর মন্দিরে ঢুকে পড়েছিলেন। এর পর মন্দির কর্তৃপক্ষ মন্দির প্রাঙ্গন ‘পবিত্র’ করতে অনেক ধরণের আনুষ্ঠানিকতা পালন করে।






মন্তব্য চালু নেই