মেইন ম্যেনু

নারীদেহের যেসব ক্ষতি করে ধূমপান!

ধুমপানে বিষপান। এটি নারী-পুরুষ উভয়ের জন্যই প্রযোজ্য। আজ এক মেয়ের গল্প দিয়েই শুরু করি। সিগারেট খাওয়ায় নিয়ে কোনও দিনই আপত্তি ছিল না। প্রেম যখন ছিল তখন কখনও প্রেমিকের ঠোঁট থেকে সিগারেট কেড়ে নিয়ে নিজের ঠোঁটে সিগারেটকে চুম্বন করেছেন প্রেমিকা, এক নয় দুই নয়, হাজার হাজার দিন কেটেছে এই ভাবেই।–কালেরকন্ঠ।

সম্পর্ক সামাজিক পরিণতি পায় বিয়েতে। বিয়ের পরেও সিগারেটে কোনও আপত্তি ছিল না। তবে আপত্তি যখন হল, তখন অনেকটা দেরি হয়ে গিয়েছে। বিয়ের পর প্রথমবার বিবাহ বিচ্ছেদের অশনি সংকেত। প্রেমিকা থেকে বউ তো হয়ে উঠলেন, কিন্তু আর মা হওয়া হবে না, তাই বিচ্ছেদের অশনি সংকেত। ধূমপানের কারণেই গর্ভধারণের ক্ষমতা হ্রাস পেয়েছে, আর এই কারণেই দুজনের মধ্যে বিবাদ।

মধ্যবয়সী নারীর ক্ষেত্রে এই সমস্যা নতুন নয়। সিগারেটের কারণে বিবাহ-বিচ্ছেদ, শুনে যাই মনে হোক, এর গভীরে গেলে পাওয়া যায় এমন এক রূঢ় সত্য, যা জানলে আর কখনও সিগারেট ছুঁতেই ইচ্ছে করবে না, বরং ভয় হবে।

গবেষণা বলছে, “কোনও মহিলা দিনে ১০টি কিংবা তার বেশি সিগারেট খেলে তার গর্ভধারণ ক্ষমতা হ্রাস পায়, সে আর জন্ম দিতে পারেনা। সিগারেটের অভ্যাস থেকে একের পর এক নিকোটিনের লেয়ার মহিলাদের উর্বরতা সশক্তি হ্রাস করে এবং এই সমস্যা বন্ধ্যাত্বও এনে দেয়”।






মন্তব্য চালু নেই