মেইন ম্যেনু

নারীরা সারা জীবনে ঠিক কতটা লিপস্টিক খান? তাদের জেনে রাখা উচিত!

অনেকের কাছে বিষয়টি আলোচনাযোগ্য মনে না হলেও বিষয়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বাহ্যিক সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য নারীরা অপ্রয়োজনেও নিয়মিত লিপস্টিক ব্যবহার করে থাকেন। বস্তুত দুই থেকে তিন রকমের মোম, উল গ্রিজ, পেট্রোলিয়াম— এর কোনওটাই মানুষের খাদ্য নয়। অথচ এই উপাদানগুলোকে নিয়মিত নারীরা খেয়ে চলেছেন। লিপস্টিক ব্যবহারের মাধ্যমে। ২০০৪-এর একটি সমীক্ষায় জানা যায় যে, ২৮ শতাংশ লিপস্টিকেই রয়েছে এমন রাসায়নিক পদার্থ যা থেকে ক্যানসার হওয়ার সম্ভাবনাও রয়েছে।

বিভিন্ন ধরনের লিপস্টিকে ব্যবহৃত প্রায় ১০ হাজার রাসায়নিক কিছুতেই মানব শরীরের পক্ষে উপযোগী নয়। যে সকল নারীরা সপ্তাহে ৩ দিন লিপস্টিক ব্যবহার করেন, তাঁদের লুপাস নামের এক চর্মরোগের সম্ভাবনা ৪০ শতাংশ বেড়ে যায়।
পরিচিত কসমেটিকস ব্র্যান্ডগুলির তৈরি লিপস্টিকেও সিসার পরিমাণ অনেক সময়েই বিপদসীমার উপরে থাকে। শুধু ত্বকের মাধ্যমে লিপস্টিক পেটে প্রবেশ করে, এমন নয়। লিপস্টিকের বেশিরভাগটাই উদরস্থ হয় খাওয়া বা পানের সময়ে।

স্বাস্থ্য সচেতন রূপ-বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দেন ন্যচারাল কসমেটিকস ব্যবহার করার জন্য এবং লিপস্টিক ব্যবহার করলেও অতি সাবধানতা অবলম্বন করে ব্যবহার করা। কিন্তু তা কতটা সম্ভব হয়, তাই হলো বলার বিষয়।






মন্তব্য চালু নেই