মেইন ম্যেনু

নারীর ক্ষমতায়নে অনেক দেশের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ

চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং বলেছেন, বাংলাদেশ একটি চমৎকার সম্ভাবনাময় দেশ। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক ও সামাজিক দিক থেকে অনেক এগিয়েছে। বাংলাদেশে নারীর উন্নয়ন ও ক্ষমতায়নের অগ্রগতি অন্য অনেক দেশের চেয়ে এগিয়ে। চীন বাংলাদেশে বিনিয়োগকে যথেষ্ট গুরুত্ব দেয় এবং বহু বিনিয়োগকারী এখানে বিনিয়োগে আগ্রহী। ভবিষ্যতে বাংলাদেশে চীনের বিনিয়োগ অব্যাহত থাকবে।

জাতীয় সংসদের স্পিকার ও সিপিএ নির্বাহী কমিটির চেয়ারপারসন ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে শুক্রবার লা মেরিডিয়েন হোটেলে সৌজন্য সাক্ষাতকালে একথা বলেন তিনি।

সাক্ষাতকালে তারা দ্বিপাক্ষিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আলোচনা করেন। এ সময় তারা দু’দেশের বাণিজ্য, বিনিয়োগ ও উন্নয়নের বিভিন্ন দিক নিয়েও আলোচনা করেন।

স্পিকার চীনের প্রেসিডেন্টকে বাংলাদেশের জনগণের প্রতি তার আন্তরিকতা ও সহযোগিতার জন্য ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, চীন বাংলাদেশের দীর্ঘদিনের বন্ধু। দু’দেশের বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্প্রসারণের যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে। তিনি ভবিষ্যতে বাংলাদেশের উন্নয়নে চীনের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন।

চীনের প্রেসিডেন্টকে স্বাগত জানিয়ে স্পিকার বলেন, বাংলাদেশ ও চীনের মধ্যে বিরাজমান দ্বি-পাক্ষিক সম্পর্ক অত্যন্ত চমৎকার এবং চীন বাংলাদেশের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ উন্নয়ন অংশীদার।

তিনি বলেন, দুই দেশের সংসদ সদস্যদের মধ্যে সফর বিনিময়ের মাধ্যমে দুই দেশের রাজনৈতিক ভিত্তি আরো সুদৃঢ় হবে। তিনি বাংলাদেশ ও চীনের মধ্যে যে সব চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে তা বাস্তবায়নের প্রতি গুরুত্বারোপ করে বলেন, এর ফলে দুই দেশই উপকৃত হবে। তিনি আরো বলেন, তথ্যপ্রযুক্তি ও অবকাঠামোসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে চীনের দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা অত্যন্ত সমৃদ্ধ। বাংলাদেশের উন্নয়নে এ অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগানোর সুযোগ রয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই