মেইন ম্যেনু

নারীর গোপনাঙ্গ সংক্রমণ প্রতিরোধে দই!

ভ্যাজাইনাল থ্রাস্ট বা যোনি অঞ্চলে প্রদাহ ঘটিত রোগ একেবারে সাধারণ একটি সমস্যা৷ মূলত ইস্টের সংক্রমণের ফলেই এটি হয়ে থাকে৷ তবে গবেষকেরা এই সমস্যার সমাধান করে ফেলেছেন৷ তারা এক প্রোবায়োটিক ব্যাকটেরিয়া খুঁজে পেয়েছেন যা এই ধরণের সংক্রমণ দূর করতে সক্ষম৷ ভারতীয় বেশ কিছু গণমাধ্যম এমন খবর প্রকাশ করেছে।

ইটালির ক্যামেরিনো বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রিশ্চিনা ভারডেনেল্লি জানিয়েছেন, এ বিষয়ে দই খুব ভাল কাজ করে৷ দইয়ে এক ধরণের প্রোবায়োটিক ব্যাকটেরিয়া পাওয়া গেছে যা যোনির সংক্রমণকে প্রতিহত করতে সক্ষম৷ গবেষক দল সবচেয়ে সাধারন যোনির সংক্রমণের ক্ষেত্রে দইয়ে উপস্থিত লাক্টোব্যাসিলির অ্যান্টিমাইক্রোবায়াল ক্ষমতা পরিদর্শনের জন্য দইয়ের পাঁচটি স্তরে পরীক্ষা করেন৷ পাঁচটি পর্যায়ে পরীক্ষা করে দেখা যায় সিনবায়ো সূত্রের মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য সামগ্রিক বৈশিষ্ট রয়েছে যা মানবকোষে জন্ম নেওয়া এই ধরণের সংক্রমণ ও ইস্টের সংক্রমণকে বাধা দিতে সাহায্য করে৷

যদিও সোসাইটি ফর অ্যাপ্লায়েড মাইক্রোবায়োলজি থেকে প্রকাশিত অ্যাপ্লায়েড মাইক্রোবায়োলজি জার্নালে বলা হয়েছে, অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল প্রতিরোধের ক্রমবর্ধমান সমস্যার সঙ্গে এই ধরণের সংক্রমণের প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণের বিকল্প পদ্ধতি বিবেচনা করাও অত্যাবশ্যক৷






মন্তব্য চালু নেই