মেইন ম্যেনু

‘নিঃশব্দে মানুষ খুনের উপায় শিখেছে সিঙ্গাপুরে আটক হওয়া জঙ্গিরা’

সিঙ্গাপুরে ‘অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা আইন’র আওতায় গ্রেফতার হওয়া ২৭ বাংলাদেশী জঙ্গির অনেকের কাছ থেকেই একটি বিশেষ ধরণের নথি উদ্ধার করেছে দেশটির পুলিশ।

মানুষকে কীভাবে ‘নিঃশব্দে হত্যা’ করতে হয়, সে বিষয়ে ওই নথিতে ছবিসহ নির্দেশনা রয়েছে বলে দাবি করেছে তারা।

সিঙ্গাপুরের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বুধবার জানানো হয়, বাংলায় তৈরি নথিটির সফটকপি তাদের সবার কাছে ইংরেজিতে ‘Techniques Of Silent Killing’ নামে সেভ করা ছিলো।

ফাইলটি থেকে একটি ডায়াগ্রাম (নির্দেশনাসহ ছবি) প্রকাশ করেছে তারা। ছবিটিতে দেখানো হয়েছে, এক ব্যক্তি আরেকজনকে ছুরি দিয়ে হত্যা করছে।

১৯৮৯ সালে প্রকাশিত মাস্টার হেই লং রচিত ‘২১ টেকনিকস অব সাইলেন্ট কিলিং’-এও হুবহু এমনই একটি ডায়াগ্রাম রয়েছে। ব্রিটেনে সন্ত্রাসী হামলার সন্দেহভাজনদের কাছে বইটির কপি পাওয়া গেছে। অনলাইন শপিং ওয়েবসাইট অ্যামাজন ও গুডরিডস-এ বইটি পাওয়া যায়।

বইটির বর্ণনায় সাইটগুলোতে লেখা হয়েছে, বইটিতে ‘ঠাণ্ডা মাথায় নিখুঁত দক্ষতায় মানুষ হত্যার জন্য প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ঘাতকদের ব্যবহৃত পদ্ধতি উল্লেখ করা হয়েছে। শিখুন গজাল, ছুরি এবং নানচাকু ব্যবহার করে কীভাবে সবচেয়ে কম সময়ে হত্যার উদ্দেশ্যে সবচেয়ে বেশি মারাত্মক আঘাত করা যায়।’

জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে ২৭ বাংলাদেশীকে গ্রেপ্তারের তথ্য বুধবারই সিঙ্গাপুর কর্তৃপক্ষ প্রথম প্রকাশ করে। দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে এ তথ্য প্রকাশ করলেও খবরটি প্রকাশিত হয়েছিলো ১ মাস আগেই।

১৯ ডিসেম্বর, ২০১৫ প্রকাশিত এনামূল কবীর রুপমের ওই প্রতিবেদনে জানানো হয়েছিলো, জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে সিঙ্গাপুর থেকে ফেরত পাঠানো ২৫ বাংলাদেশীকে বাংলাদেশের টিএফআই (টাস্কফোর্স ইন্টারোগেশন) সেলে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।-চ্যানেলআই






মন্তব্য চালু নেই