মেইন ম্যেনু

নিউইয়র্কের এডিরনডেক পার্ক- একটি পারফেক্ট ভ্রমণ প্যাকেজ

নিউইয়র্কের উত্তরে এর অবস্থান। এডিরনডাক পার্ক দেশটির একটি জনপ্রিয় আকর্ষণ। চমৎকার প্রকৃতিকে সুরক্ষিত করতে বিশাল এলাকাকে আনা হয়েছে পার্কের আওতায়। প্রায় ৬ মিলিয়ন একর বা ২.৫ মিলিয়ন হেক্টর জায়গা জুড়ে পার্কটি বিস্তৃত। মজার ব্যাপার হল পার্কটির প্রায় ৫২ শতাংশই ব্যক্তিগত মালিকানাধীন। সম্পূর্ণ এলাকায় শত শত শহর এবং গ্রাম রয়েছে। সব মিলিয়ে ১ লক্ষ ৩২ হাজার মানুষের বাস এখানে।

১৮৯২ সালে পার্কটির স্থাপনা করে নিউ ইয়র্ক স্টেট এবং তখন থেকে এটি যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় জনবসতি দ্বারা সংরক্ষিত এলাকা। প্রতিবছর ১০ মিলিয়ন ট্যুরিস্ট আসে এখানে। আপনি যদি এখনও চমৎকার এই জায়গাটি ভ্রমণ না করে থাকেন তাহলে পরবর্তী ভ্রমণেই এর নাম রাখুন। আসুন জেনে নিই, কেন বেড়াতে যাবেন এখানে।

বিনামূল্যে প্রবেশ
৬ মিলিয়ন একর জায়গার এডিরনডাক পার্ক যুক্তরাষ্ট্রের অন্য অনেক পার্কের চেয়ে বড় তো তো বটেই বরং কয়েকটি পার্কের সমষ্টিও। তারপরও এটি যেহেতু ন্যাশনাল পার্ক নয়, তাই এর কোন প্রবেশ মূল্য নেই।

উন্মূক্ত রাত
ন্যাশনাল পার্ক না হওয়ার কারণে আপনাকে নির্দিষ্ট সময়ের পরে পার্ক থেকে বেরিয়ে যেতে হবে না। পার্কের অভ্যন্তরে যতক্ষণ ইচ্ছা অবস্থান করতে পারবেন আপনি। দেখতে পারবেন পাহাড়ের চূড়ায় চাঁদ অথবা চাঁদ বিহীন রাতে অগুণতি তারা।

চমৎকার লোকেশন
NYC থেকে এখানে পৌছতে আপনার মাত্র ৪ ঘন্টা সময় লাগবে। এছাড়া যে লোকেশনেই আপনি থাকুন না কেন সহজেই পৌঁছে যাবেন পার্কটিতে। পার্কের প্রধাণ শহর লেক প্লাসিড পর্যন্ত ট্রেন বা বাসে সহজেই যাওয়া যায়।

কায়াকিং
এডিরনডাক পার্কে আছে ৩০০০ লেক এবং পুকুর। আছে ৩০ হাজার মাইল পর্যন্ত দীর্ঘ নদী। সব মিলিয়ে জায়গাটি কায়াকিং, ক্যানয়িং এবং অন্যান্য পানিতে করার মত উপভোগ্য কাজের জন্য অসাধারণ।

অপরূপ প্রকৃতি
পার্কটির অভ্যন্তরে আছে অসংখ্য সুউচ্চ পর্বতের সারি। তাই হাইকিং, ট্রাকিং এ বেরিয়ে পড়তে পারেন অনায়াসেই। উপভোগ করতে পারেন পার্কের শ্বাসরুদ্ধকর দৃশ্যাবলী। মাউন্ট মার্সি এখানে সর্বোচ্চ পর্বত এবং এর উচ্চতা ৫,৩৪৩ ফুট বা ১,৬২৯ মিটার।

বন্য জীবন
৫০ প্রজাতির স্তন্যপায়ী প্রাণী সহ অসংখ্য প্রজাতির পাখির সাথে দেখা হবে আপনার এখানে। মুজ, শেয়াল, ওটার সহ নানান পরিচিত-অপরিচিত প্রাণীর বৈচিতেময় জীবন উপভোগ করতে হলে এর চেয়ে চমৎকার পার্ক আর হয় না। আপনি চাইলে শিকারেও যেতে পারবেন।






মন্তব্য চালু নেই